একঝাঁক মন্ত্রী এনে প্রচারে ঝড় চান অর্পিতা
দলীয় সূত্রে খবর, তৃণমূলের জেলা সভাপতি বিপ্লব মিত্র প্রার্থী হতে না পারার দুঃখে অর্পিতার হয়ে প্রচারে বিশেষ জোর দিচ্ছেন না।
Arpita

লোকসভার প্রচারে ঝড় তুলতে চাইছেন তৃণমূল প্রার্থী অর্পিতা ঘোষ। আজ বুধবার থেকে এই প্রচার শুরু হচ্ছে বলে খবর। জেলার বিভিন্ন প্রান্তে মন্ত্রীদের দিয়ে সভা করে প্রচার করতে পরিকল্পনা নিয়েছে তৃণমূল শিবির।

কিন্তু পরপর এত মন্ত্রী দিয়ে এই প্রচার কেন? 

দলীয় সূত্রে খবর, তৃণমূলের জেলা সভাপতি বিপ্লব মিত্র প্রার্থী হতে না পারার দুঃখে অর্পিতার হয়ে প্রচারে বিশেষ জোর দিচ্ছেন না। এই অবস্থায় নিজের প্রচার কৌশল থেকে কাকে কোথায় এনে সভা করাতে হবে, সবই অর্পিতার নিজেকেই করতে হচ্ছে। এ জন্যই অর্পিতা তাঁর ঘনিষ্ঠ রাজ্যের একদল মন্ত্রীকে নিজের প্রচারে ব্যবহার করতে কৌশল নিয়েছেন বলে খবর। বিপ্লববাবু অবশ্য বলেন, ‘‘দলে কোনও দ্বন্দ্ব নেই। আমাদের কর্মীরা কেউ বসেও নেই। সবাই প্রচারে নেমেছেন। তবে মন্ত্রীরা এলে আরও ভাল।’’

অর্পিতা বলেন, ‘‘বেশ কয়েক জন মন্ত্রী জেলায় আসছেন। তাঁরা জেলার বিভিন্ন জায়গায় প্রচার করবেন। আমার মনোনয়নের সময়েও থাকবেন। কবে কোথায় কে সভা করবেন সেই সূচি তৈরি করা হচ্ছে।’’ তৃণমূল সূত্রে খবর, মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম থেকে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, ব্রাত্য বসু, পূর্ণেন্দু বসুর মতো মন্ত্রীদের দিয়ে এক নাগাড়ে প্রচার চালানো হবে বলে খবর। আজ বুধবার জেলায় আসছেন রাজীব। তিনি গঙ্গারামপুরের প্রাণসাগর ও সুকদেবপুরে দু’টি সভা করবেন। এর পরে বৃহস্পতিবার অর্পিতা মনোনয়ন জমা দেবেন। 

মনোনয়ন জমা দেবার দিনে মন্ত্রী ব্রাত্য বসু ও পূর্ণেন্দুবাবুর থাকার কথা রয়েছে। মনোনয়ন জমা দিয়ে দুই মন্ত্রীকে দিয়ে জেলার বালুরঘাট ও গঙ্গারামপুরে সভা করার পরিকল্পনা নিয়েছে তৃণমূল নেতৃত্ব। এরপরে জেলায় আসছেন মন্ত্রী ফিরহাদ। 

এ দিকে, লোকসভা নির্বাচন পরিচালনা করতে বালুরঘাটের ফ্ল্যাটবাড়িতে ঘাঁটি গেড়েছেন অর্পিতা। গোটা ফ্ল্যাট বাড়িকে কার্যত 'ওয়্যার রুম' তৈরি করেছেন তৃণমূলের এই নাট্যকর্মী প্রার্থী। সেখানে বসেই নির্বাচনের সমস্ত ছক ও কৌশল ঠিক করছেন তিনি। জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বাছাই করা অনুগামীদের এনে কোথায় কত পতাকা লাগাতে হবে, কোন এলাকায় এখনও দেওয়াল লেখা হয়নি, অঞ্চল ধরে ধরে তার খুঁটিনাটি খোঁজ নিচ্ছেন অর্পিতা। সেখান থেকেই বিভিন্ন নির্দেশ দিচ্ছেন অনুগামীদের। দেওয়াল লেখা থেকে পতাকা, ফ্লেক্স বাঁধা থেকে প্রচারের ব্লুপ্রিন্ট তৈরি সবই প্রার্থীকেই করতে হচ্ছে। তাঁর সঙ্গে রয়েছেন এক সার তৃণমূলকর্মীও।