ভোটের পরে সংঘর্ষ চলছে দিনহাটায়
দিনহাটার আইসি সঞ্জয় দত্ত বলেন, ‘‘এই ঘটনার এখনও অভিযোগ জমা পড়েনি। তবে  প্রশান্ত রায় বসুনিয়া নামে এক যুবক অভিযোগ করতে এলে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তখন অভিযোগের সঙ্গে তাঁর বক্তব্যের মিল  পাওয়া যায়নি।’’
vote

প্রতীকী ছবি।

বিজেপির যুব মোর্চার সম্পাদকের বাড়ি লক্ষ্য করে পরপর দু’টি বোমা ছোড়ায় ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠল দিনহাটা। দিনহাটা ১ ব্লকের পুটিমারি ১ গ্রাম পঞ্চায়েতের খরখরিয়া গ্রামে  সোমবার রাতে এই ঘটনায় অভিযোগ উঠে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। তৃণমূলের পক্ষ থেকে অবশ্য দাবি করা হয়েছে, বিজেপির গোষ্ঠী কোন্দলের জেরেও ওই কাণ্ড হয়েছে। পুলিশের কাছে অবশ্য এই ঘটনা নিয়ে এখনও কোনও অভিযোগ জমা পড়েনি। 

বিজেপির ২৩ নম্বর জেলা পরিষদের যুব মোর্চার সম্পাদক প্রশান্ত রায় বসুনিয়া জানান, এ দিন রাতে তাঁরা খাওয়া-দাওয়া করে সকলে টিভি দেখছিলেন। হঠাৎই বাড়ির  গেটে পরপর দু’টি বোমা ফাটানো হয়। বোমের শব্দে তাঁরা ঘর থেকে বেরিয়ে আসতেই তিনটি বাইকে করে দুষ্কৃতীরা পালিয়ে যায় বলে তাঁর অভিযোগ। তাঁর দাবি, পুলিশকেও জানানো হয়। পুলিশ বোমের কিছু অংশ উদ্ধারও করে। বিজেপির কোচবিহার জেলা সম্পাদক সুদেব কর্মকার বলেন, ‘‘মাতালহাটে এক কর্মীকে মারধর করা হয়। ফের পুঁটিমারিতে যুব মোর্চার সম্পাদকের বাড়িতে বোমা ছোড়া হল। দিন কয়েক আগেও তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা যুব মোর্চার এই নেতাকে হুমকি দেয়।’’

 দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯ 

গোটা ঘটনা রাজ্য নেতৃত্বকে জানানো হচ্ছে বলেও তিনি জানান। তিনি বলেন, ‘‘পুলিশকে লিখিত  অভিযোগ দিতে গেলে সেই অভিযোগ নেওয়া হয়নি।’’ দিনহাটার আইসি সঞ্জয় দত্ত বলেন, ‘‘এই ঘটনার এখনও অভিযোগ জমা পড়েনি। তবে  প্রশান্ত রায় বসুনিয়া নামে এক যুবক অভিযোগ করতে এলে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তখন অভিযোগের সঙ্গে তাঁর বক্তব্যের মিল  পাওয়া যায়নি।’’ তবে পুলিশ ঘটনা খতিয়ে দেখছে বলে জানান। 

তৃণমূলের দিনহাটা এক ব্লক সভাপতি নুর আলম হোসেন বলেন, ‘‘প্রার্থী নিয়ে বিজেপির কোন্দলের জেরেই এই কাণ্ড। ঘটনার সঙ্গে তৃণমূল কর্মীদের কোন সম্পর্ক নেই।’’