• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বিয়ে রুখে মাধ্যমিকে

panjerin
পানজেরিন খাতুন। নিজস্ব চিত্র

পড়াশোনার জন্য নিজের বিয়ে রুখে দিয়েছিল চাকুলিয়া হাইস্কুলের ছাত্রী পানজেরিন খাতুন। মঙ্গলবার মাধ্যমিক পরীক্ষায় বসল সে। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, উত্তর দিনাজপুরের চাকুলিয়ার ডাঙিপাড়ার বাসিন্দা পানজেরিন চার ভাইবোনের মধ্যে মেজ। দিদির বিয়ে হয়ে গিয়েছে। বাবা নুরুউদ্দিন দিনমজুর। সংসারে নুন আনতে পান্তা ফুরোয়। বাড়ির কাজে হাত লাগাতে হয় পানজেরিনকেও। অভাবের সংসারে পরিবারের লোকজন গত ডিসেম্বর মাসে পানজেরিনের বিয়ে ঠিক করেন। পরিজনদের জেদের মুখেও পানজেরিন বেঁকে বসে। নিজের বিয়ে রুখতে স্কুলের সাহায্য নেয়। স্কুলে চিঠি দিয়ে জানায়, সে পড়াশোনা করতে চায়। এর পরে স্কুল উদ্যোগী হয়। খবর পেয়ে ব্লক প্রশাসন ওই ছাত্রীর বিয়ে রুখে দেয়। স্কুলের শিক্ষকেরা বোঝান তাঁর পরিজনদের। গত বছরও মাধ্যমিক পরীক্ষা দিয়েছিল পানজেরিন। কিন্ত অসফল হয়। তার পরেই পরিজনেরা তার বিয়ে ঠিক করেন। ওই কিশোরীর ইচ্ছা, মাধ্যমিক পাশ করেও উচ্চশিক্ষার পথে এগিয়ে যাওয়া।  মাধ্যমিকে পরীক্ষায় বসতে পেরে খুশি পানজেরিন। পরীক্ষা শেষ হওয়ার পরে সে বলে, ‘‘প্রথম বার পাশ করতে পারেনি। ফের স্কুলে আবেদন করি। স্কুলও সাহায্য করেছে।’’

পানজেরিন জানায়, প্রতি দিন ১৫ কিলোমিটার দূরে স্কুলে যেত সে।  পরীক্ষাকেন্দ্র পড়েছে শকুন্তলা হাইস্কুলে। ওই কিশোরীর বাড়ি থেকে সেটি প্রায় ২৫ কিলোমিটার দূরে।

 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন