• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

নথি নেই, সীমান্তে আটক বিদেশি

Russian
আটক রাশিয়ান নাগরিক। —নিজস্ব চিত্র

পাসপোর্ট, ভিসা ছাড়া নেপাল থেকে ভারতে ঢোকার সময় রাশিয়ার এক নাগরিককে গ্রেফতার করল সশস্ত্র সীমা বল। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় শিলিগুড়ি মহকুমার পানিট্যাঙ্কি সীমান্ত এলাকার ঘটনা। টানা কয়েক ঘণ্টা জেরার পরে রাতের দিকে ওই বিদেশিকে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে এসএসবি। ধৃতের বিরুদ্ধে বৈধ নথিপত্র ছাড়া সীমান্ত টপকানোর অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ দিন তাকে ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন শিলিগু়ড়ি আদালতের বিচারক। 

পুলিশ ও এসএসবি সূত্রের খবর, ধৃতের নাম সার্গেই ডেমিন ওরফে রেগজিন। ২০১১ থেকে তিনি নেপালের পারফিং এলাকায় তথ্য গোপন করে লুকিয়ে ছিলেন বলে দাবি এসএসবির। কাঠমান্ডু থেকে পারফিংয়ে পৌঁছতে ৯০ মিনিট সময় লাগে। ধৃত পানিট্যাঙ্কি এসে সন্ধের পরে ভারতে ঢোকার চেষ্টা করছিলেন। রেগজিনের দাবি, তিনি বৌদ্ধধর্ম, সংস্কৃত এবং শিব সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে পড়াশোনা করছিলেন। জেরায় রেগজিন জানিয়েছেন, সাত বছর আগেও তিনি একাধিকবার বৈধ পাসপোর্ট, ভিসা নিয়ে নেপাল, ভারতে ঘুরে গিয়েছিলেন। ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে ঘোরার পরে তিনি বৌদ্ধধর্ম নিয়ে কাজ শুরু করেন। দেশে ফিরবেন না ঠিক করে নেপালে আস্তানা করে পাসপোর্ট আগুনে পুড়িয়ে দেন বলে তাঁর দাবি। জেরায় রেগজিন তাঁর বাড়ি সম্পর্কে সঠিকভাবে জানাতে পারেননি বলেও জানিয়েছে এসএসবি। কোনও সময় বলেছেন ঠিকানা ভুলে গিয়েছেন। কখনও দাবি করেছেন মস্কোর আশেপাশে।

ধৃতের হেফাজত থেকে ভারতীয় মুদ্রায় নগদ প্রায় ৬১ হাজার টাকা, ১৩টি ছোট সোনার কয়েন, চা পাতা, ভারতের ম্যাপবুক এবং দু’টি ডায়েরি উদ্ধার হয়েছে। এসএসবির দাবি, ডায়েরিতে ভারতের ১৮টি মন্দিরের ঠিকানা লেখা রয়েছে এবং তিব্বতি ভাষায় নানা বাক্য লেখা রয়েছে। তাতে কী লেখা রয়েছে সেগুলো দেখার জন্য বিশেষজ্ঞদের সাহায্য নেওয়া হচ্ছে। ভারত-নেপাল সীমান্তের পানিট্যাঙ্কিতে মোতায়েন এসএসবি ৪১ নম্বর ব্যাটেলিয়নের কমান্ড্যান্ট রাজীব রানা রেগজিনের সঙ্গে কথা বলেছেন। বুধবার নেপালের কাঠমান্ডুতে থাকা রাশিয়ার দূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। সেখান থেকে রেগজিনের সম্পর্কে বাহিনীর শিলিগুড়ি ফ্রন্টিয়রের এক কর্তা বলেন, ‘‘আমরা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকে সব জানিয়ে দিয়েছি। নেপাল থেকে রেগজিনের সম্পর্কে আরও তথ্য জোগাড়ের চেষ্টা করা হচ্ছে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন