সহপাঠীদের কয়েক জনকে আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে স্কুলের পরিচালন সমিতির সভাপতির ছেলের বিরুদ্ধে। সোমবার বিকেলে ওই অভিযোগকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়ায় রায়গঞ্জ ব্লকের মহীপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের ভগিলতা হাইস্কুলে। পুলিশ জানিয়েছে, ওই স্কুলের পরিচালন সমিতির সভাপতির নাম কামাল আজগার। তাঁর ছেলে ওই স্কুলে একাদশ শ্রেণিতে পড়াশোনা করে। আগের গোলমালকে কেন্দ্র করে এদিন ওই ছাত্র তাঁর কয়েক জন সহপাঠীকে ভগিলতা বাসস্ট্যান্ডে আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে হুমকি দেয় বলে অভিযোগ তুলেছেন অভিভাবক ও এলাকার বাসিন্দাদের একাংশ। তাঁরা এ দিন বিকেল সাড়ে চারটে নাগাদ স্কুলে যান। এর পর তাঁরা কামাল ও তাঁর ছেলের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে এফআইআর করার দাবিতে প্রধান শিক্ষককে ঘেরাও করে বিক্ষোভ শুরু করেন। রাত পর্যন্ত বিক্ষোভ চলতে থাকে। স্কুলের প্রধান শিক্ষক সৌমিত্র মোদক বলেন, ‘‘অভিভাবকদের সঙ্গে স্কুল কর্তৃপক্ষের কথা চলছে। আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধানের চেষ্টাও চলছে।’’

কামাল দাবি করেন, তিনি ও তাঁর ছেলের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র করে মিথ্যা অভিযোগ তোলা হচ্ছে। পদ থেকে সরাতেই এই চক্রান্ত, দাবি তাঁর। কামালের দাবি, তাঁর ছেলে আগ্নেয়াস্ত্র তো দেখায়ইনি, উল্টে স্কুলের কিছু পড়ুয়া তাকে মেরেছে।

পুলিশ সূত্রের খবর, এ দিন স্কুলে সহপাঠীদের একাংশের সঙ্গে কামালের ছেলের গোলমাল হয়। খবর পেয়ে কামাল স্কুলে যান। ছুটির পরে ছাত্রেরা ভগিলতা বাসস্ট্যান্ডে দাঁড়িয়ে থাকার সময়ে কামালের ছেলে আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে হুমকি দেয় বলে অভিযোগ। যদিও কামালের ছেলের দাবি, তার বাবা পরিচালন সমিতির সভাপতি বলে হিংসের চোটে কেউ কেউ এই অভিযোগ তুলেছে।