• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

আরও ৬৭ কিমি লাইনে বিদ্যুৎ

NJP
—ফাইল চিত্র।

এনজেপি থেকে কলকাতা এবং দিল্লির দিকে বৈদ্যুতিক ট্রেন চালাতে শেষ ধাপ পার করে ফেলল উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেল। মঙ্গলবার মুখ্য রেল নিরাপত্তা কমিশনার শৈলেশ কুমার পাঠক এনজেপি থেকে গুঞ্জারিয়া পর্যন্ত ৬৭ কিলোমিটার লাইনের পরীক্ষা চালান দিনভর। রেল কর্তাদের ইঙ্গিত, ছাড়পত্র পেলে এ মাসের যে কোনও সময় চালু হয়ে যাবে বৈদ্যুতিক ট্রেন। মালদার বিভিন্ন স্টেশনে ঝামেলার জেরে এই পরিদর্শন সাময়িক ভাবে বন্ধ রাখা হয়েছিল। এখনও সেই পরিস্থিত পুরোপুরি ঠিক হয়নি। তবে উত্তরবঙ্গ থেকে দক্ষিণবঙ্গের দিকে মূল ট্রেনগুলি চালু করে দিয়েছে রেল। 

উত্তর দিনাজপুরের গুঞ্জারিয়া থেকেই এনজেপি পর্যন্ত লাইনে বিদ্যুৎ টানা হয়েছে। সেখান থেকে কলকাতার দিকে বিদ্যুদয়ন রয়েছে। গুঞ্জারিয়া থেকে কাটিহার পর্যন্তও বিদ্যুদয়ন করা হয়েছে। ওই লাইন পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে পরীক্ষামূলকভাবে। কেবল এই অংশের পরিদর্শন বাকি ছিল। তা এদিন হয়ে গেল। রেল সেফটি কমিশনার শৈলেশ কুমার পাঠক বলেন, ‘‘আমরা বিদ্যুদয়নের ক্ষেত্রে মূল যে বিষয় খতিয়ে দেখি, তা হল, একটি মেল লাইন থেকে বিদ্যুৎ কীভাবে ভাগ করে বিভিন্ন সেকশনে বণ্টন করা হয়েছে। যাতে একটি সেকশনে গোলমাল হলে, সেটি বন্ধ রেখে অন্য সেকশনটি চালু রাখা যায়।’’ 

কবে কোন ট্রেন

২৫ ডিসেম্বর থেকে 
• এনজেপি-হাওড়া এসি এক্সপ্রেস
• সারসা-এনজেপি হাটে বাজারে
২৫ ডিসেম্বর চলবে না 
• তিস্তা তোর্সা
• রাধিকাপুর-কলকাতা
২৬ ডিসেম্বর থেকে
• তিস্তা তোর্সা আপ-ডাউন 
• হলদিবাড়ি লিঙ্ক আপ-ডাউন
• রাধিকাপুর-কলকাতা  আপ-ডাউন 
• কামাখ্যা-পুরী এক্সপ্রেস
২৮ ডিসেম্বর
• পুরী-কামাখ্যা এক্সপ্রেস
২৫-৩১ ডিসেম্বর বাতিল
• শিলিগুড়ি-বালুরঘাট আপ- ডাউন
• মালদহ-বালুরঘাট আপ- ডাউন
• কাটিহার-মালদহ আপ ও ডাউন
• এনজেপি-মালদহ টাউন

এদিন সকালে রেল বৈদ্যুতিকরণ বিভাগের ইঞ্জিনিয়ারদের নিয়ে এনজেপি থেকে পরিদর্শন শুরু করেন মুখ্য নিরাপত্তা কমিশনার। এনজেপি থেকে শুরু করে রাঙাপানি, তিনমাইল হাট, মাগুরযান, আলুয়াবাড়ি রোড হয়ে গুঞ্জারিয়া পর্যন্ত ওই পরিদর্শন চলে প্রায় সন্ধ্যে পর্যন্ত। উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক শুভানন চন্দ বলেন, ‘‘সূচি বদল করে এই পরীক্ষা করা হয়েছে। পরিদর্শন সফলভাবেই করা হয়েছে। তবে চূড়ান্ত রিপোর্ট বা ছাড়পত্র না আসা পর্যন্ত এই লাইনে কবে বৈদ্যুতিক ট্রেন চালানো যাবে, তা এখুনি বলা মুসকিল।’’ এদিন সন্ধ্যায় আলুয়াবাড়ি পৌঁছয় পরিদর্শকদের দলটি। কিছুক্ষণ আলুয়াবাড়ি স্টেশনেও দাড়ায় পরিদর্শকদের ট্রেন। গাইসাল স্টেশন পৌছানোর পর আলুয়াবাড়ি রোড স্টেশন থেকে একটি ইলেকট্রনিক ইঞ্জিন গাইসালে এলে তাতে এনজেপির দিকে ফিরে আসে দলটি। উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেল সূত্রে জানানো হয়েছে, আগামী ২৬ ডিসেম্বর থেকে ৩০ ডিসেম্বরের মধ্যে আরও কিছু দূরপাল্লার ট্রেন চালানো শুরু করে দেওয়া হবে। হাওড়া-বালুরঘাট এক্সপ্রেস, আপ ও ডাউন, তিস্তা-তোর্সা এক্সপ্রেস, রাধিকাপুর এক্সপ্রেস চালানো হবে। তবে স্টেশন ও লাইনে মেরামতি, ইন্টারলকিং ব্যবস্থা পুনর্বহাল করার জন্য ৫ জানুয়ারি পর্যন্ত ভালুকা রোডে কোনও ট্রেন দাঁড়াবে না বলে জানান কর্তারা।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন