• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

শ্বাসরোধ করে ‘খুন’ শিশুকে

Arrest
প্রতীকী ছবি

দু’বছরের শিশুকে শ্বাসরোধ করে খুনের অভিযোগ উঠল কাকা ও জেঠিমার বিরুদ্ধে। সোমবার রাতে ঘটনাটি ঘটে মালদহের মানিকচক থানার বেগমগঞ্জ এলাকায়। অভিযুক্ত দু’জনকেই গ্রেফতার করা হয়েছে। 

পুলিশ জানায়, মৃত শিশুর নাম আদর্শ মণ্ডল (২)। তার বাবা নির্মল দিল্লিতে শ্রমিকের কাজ করেন। ওই ঘটনায় জড়িত অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে নির্মলের ভাই রাজেশ এবং বৌদি অর্চনাকে। বুধবার ধৃতদের মালদহ জেলা আদালতে পেশ করা হবে বলে জানিয়েছেন জেলা পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া। তিনি বলেন, ‘‘টাকাপয়সা নিয়ে বিবাদের জেরেই শিশুটিকে খুন করা হয়েছে বলে প্রাথমিক তদন্তে অনুমান।’’

পারিবারিক ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, নির্মলেরা তিন ভাই। নির্মল ও তাঁর বড় দাদা নিতাই ভিন্‌ রাজ্যে শ্রমিকের কাজ করেন। তাঁরা দু’জনই এখনও দিল্লিতে রয়েছেন। রাজেশ বাড়িতে থাকে। সোমবার বিকেলে গবাদি পশুকে খাওয়াতে ঘাস কাটতে গিয়েছিলেন নির্মলের স্ত্রী সুমিতা। তখন ঘরে ঘুমোচ্ছিল আদর্শ। সুমিতা জানিয়েছেন, বাড়ি ফিরে তিনি দেখেন ছেলের থুতনিতে রক্ত লেগে রয়েছে। বেহুঁশ হয়ে পড়ে রয়েছে সে। বারবার ডেকেও কোন সাড়া না দেওয়ায় গ্রামবাসীদের সাহায্যে ছেলেকে মানিকচক গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যান সুমিতা। সেখানে শিশুটিকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। 

স্থানীয় সূত্রে খবর, ওই ঘটনা ঘিরে হইচই পড়ে হাসপাতাল চত্বরে। পুলিশ শিশুটির মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায় মালদহ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে। এলাকাবাসীর একাংশের দাবি, ব্যাঙ্কের অ্যাকাউন্টে ওই পরিবারের লোকেদের ৫০ হাজার টাকা রাখা ছিল। অভিযোগ, তা থেকে ৩০ হাজার টাকা কাউকে না জানিয়ে তুলে নিয়েছিলেন নির্মল। তা নিয়েই শুরু হয় গোলমাল। অভিযোগ, তার জেরেই নির্মলের দু’বছরের ছেলেকে শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, শিশুর গলায় শ্বাসরোধ করার চিহ্ন রয়েছে। থুতনিতেও আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ময়নাতদন্তের পরেই মূত্যুর কারণ স্পষ্ট হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

সুমিতা বলেন, ‘‘জমি থেকে ঘাস কাটতে যাওয়ার সময় বাড়িতে দেওর ও জা ছিলেন। ওরাই আমার ছেলেকে খুন করেছে। ব্যাঙ্ক থেকে টাকা তোলা নিয়ে স্বামীর সঙ্গে ওদের গোলমাল হচ্ছিল। সে জন্যই আমার ছেলেকে খুন করা হয়েছে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন