দেশ জুড়ে ‘গাঁধী সংকল্প যাত্রা’ শুরু করেছে বিজেপি। জেলাতেও শনিবার থেকে শুরু হয়েছে ওই কর্মসূচি। তৃণমূলের পক্ষ থেকেও মোহনদাস কর্মচন্দ গাঁধীর সার্ধশতবর্ষ জন্মজয়ন্তী পালনে সম্প্রীতির পদযাত্রা করা হল। মঙ্গলবার জেলা সদর সিউড়িতে তৃণমূলের দলীয় কার্যালয় থেকে ওই পদযাত্রার সূচনা হয়। শহর পরিক্রমা করে তা ফেরে তৃণমূল কার্যালয়ের সামনে। উপস্থিত ছিলেন সিউড়ির বিধায়ক অশোক চট্টোপাধ্যায়, সিউড়ি পুরসভার চেয়ারম্যান উজ্জ্বল চট্টোপাধ্যায়, শহর তৃণমূলের সভাপতি অভয় ভট্টাচার্য। খয়রাশোল, রামপুরহাট ও বোলপুরেও সম্প্রীতি পদযাত্রা বের হয়। 

দিনদুয়েক আগে বিজেপির সংকল্প যাত্রার সমালোচনা করেছিলেন তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। তৃণমূলের সম্প্রীতির পদযাত্রা প্রসঙ্গে বিজেপির জেলা সভাপতি শ্যামাপদ মণ্ডল বলেন, ‘‘তৃণমূল এখন বিজেপিকে অনুকরণ করা ছাড়া আর কিছু ভাবতে পারছে না।’’ 

অন্যদিকে গাঁধী সংকল্প যাত্রার সূচনা হয় নানুর ও কীর্ণাহারেও। মঙ্গলবার নানুর ব্লক অফিস থেকে বাসস্ট্যান্ড এবং কীর্ণাহার ভদ্রকালীতলা থেকে বাঁধাঘাট পর্যন্ত পদযাত্রা করা হয়। বিজেপির সহ-সভাপতি বিশ্বজিৎ মণ্ডল, লাভপুর এবং নানুর মণ্ডল কমিটির সভাপতি সুবীর মণ্ডল ও বিনয় ঘোষ, বিকাশ আচার্যের নেতৃত্বে দুই শতাধিক কর্মী-সমর্থক ওই কর্মসূচিতে অংশ নেন।