পঞ্চায়েত অফিসে সভার মধ্যে হামলার অভিযোগ উঠল বিজেপির বিরুদ্ধে। তালড্যাংরার ফুলমতি পঞ্চায়েতের ঘটনা। শনিবার দুপুর ১ নাগাদ ঘটনাটি ঘটে। ঘটনায় এক জব সুপারভাইজ়র আহত হয়েছেন। তিনি তালড্যাংরা ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসাধীন। ওই পঞ্চায়েতের প্রধানের অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতার করা হয়েছে পাঁচ জনকে। এসডিপিও (খাতড়া) বিবেক বর্মা বলেন, ‘‘ঘটনার তদন্ত চলছে।’’

পঞ্চায়েত সূত্রে জানা গিয়েছে, এ দিন ১০০ দিনের কাজের পরিকল্পনা সংক্রান্ত সভা চলছিল। উপস্থিত ছিলেন প্রধান,  পঞ্চায়েতের সদস্য ও প্রকল্পের সুপারভাইজ়রেরা। সেই সময়ে বিজেপির কিছু কর্মী সমর্থক অফিসে হামলা করেন বলে অভিযোগ। তালড্যাংরা ব্লক তৃণমূলের সম্পাদক মনসারাম লায়েকের কথায়, ‘‘সরোজ পাল নামে আমাদের এক কর্মী জব সুপারভাইজ়রের কাজ করেন। তাঁকে মারধর করা হয়। গালিগালাজ করা হয় প্রধান ও অন্যদের।’’ সরোজ তালড্যাংরা ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসাধীন। তাঁরও দাবি, ‘‘বিজেপির ছেলেরা আমার মাথায় লাঠি দিয়ে মেরেছে।’’

বিজেপি তালড্যাংরা ২ মণ্ডল সভাপতি সুজয় দুলের দাবি, এ দিন দলের কর্মীরা পঞ্চায়েত এলাকায় ১০০ দিনের কাজের দাবি আর এলাকার নলকূপ সারানোর আর্জি নিয়ে প্রধানের সঙ্গে কথা বলতে গিয়েছিলেন। তিনি বলেন, ‘‘সেই সময়ে ওই সুপারভাইজ়র ওদের গালিগালাজ করেন। কাজ না দেওয়ার কথা বলেন। তাতেই দু’পক্ষের মধ্যে বচসা বাধে।’’

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। পাঁচ জনকে গ্রেফতার করা হয়। প্রতিবাদে এ দিন সন্ধ্যায় তালড্যাংরা বাসস্টপে ঘণ্টাখানেক অবরোধ করেন বিজেপি কর্মীরা।