ধর্না কর্মসূচি তুলতে ১৪৪ ধারা এবং দলের জেলা সভাপতি-সহ নেতাকর্মীকে আটক করাকে ঘিরে শনিবার দিনভর অশান্ত ছিল সদর শহর সিউড়ি। ওই রাতেই খুলে দেওয়া হয় ধর্নামঞ্চ। রবিবার নতুন করে সেখানে আর জমায়েত হতে দেখা যায়নি বিজেপি নেতাদের। এ দিকে, শনিবার গভীর রাতেই বিজেপি-র জেলা সভাপতি শ্যামপদ মণ্ডল-সহ নেতাকর্মীরা ব্যক্তিগত বন্ডে জামিনে মুক্তি পান। বিজেপি কর্মীদের থানা থেকে নিতে আসেন বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ।

নানুরের বিজেপি কর্মী স্বরূপ গড়াইকে গুলি করে হত্যার প্রতিবাদে ও দোষীদের ধরার দাবিতে গত সোমবার থেকে সিউড়িতে জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সামনে সাত দিনের ধর্না কর্মসূচি নিয়েছিল বিজেপি। রোজ সেই মঞ্চ থেকে পুলিশকে তীব্র সমালোচনা করে গিয়েছেন বিজেপি-র জেলা ও রাজ্য নেতারা। শনিবার ছিল কর্মসূচির ষষ্ঠ দিন। ধর্না শুরু হতেই সেখানে পৌঁছে যান ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট শুভঙ্কর ভট্টাচার্য, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুবিমল পাল এবং সিউড়ি আইসি-সহ বিশাল পুলিশ বাহিনী। এরপরেই ১৪৪ ধারার নোটিশ দেখিয়ে ধর্না বন্ধ করার জন্য বলা হয়। নেতৃত্ব রাজি না হলে শ্যামাপদ মণ্ডল সহ কিছু নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করে পুলিশ।