থ্রি ইডিয়ট’-এর পোস্টার। তবে সিনেমার তিন নায়কের মুখ ফোটোশপের কারিকুরিতে বাদ দিয়ে বসানো হয়েছে জেলা বিজেপি-র তিন নেতার মুখ। নীচে ওই তিন নেতাকে বলা হয়েছে ‘অপদার্থ’ ও ‘গদ্দার’। ‘জাতীয়তাবাদী দুবরাজপুরবাসী’ নামে একটি ফেসবুক পেজে সাম্প্রতিক এই পোস্ট ঘিরে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। 

বিজেপি সূত্রেই খবর, ওই পোস্টে দলের দুবরাজপুরের দুই নেতা এবং জেলার এক শীর্ষ নেতার মুখ দেখা যাচ্ছে। ওই তিন নেতার অভিযোগ, ‘‘আমাদের বদনাম করতে এ কাজ করেছেন দলেরই কিছু কর্মী। এ সব করে আগামী পুরভোটে নিজেদের জায়গা নিশ্চিত করার জন্য ওঁরা এমন নিম্নরুচির পথে হেঁটেছেন।’’ তবে কে বা কারা এটা করেছে, সেই নাম সংবাদমাধ্যমের কাছে জানাতে চাননি ওই তিন নেতা। শুধু বলেছেন, ‘‘দলের যথাস্থানে বিষয়টি জানানো হয়েছে।’’

‘পেজ অ্যাডমিন’-এর সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়নি। তবে ফেসবুকের ওই পোস্ট থেকে ইঙ্গিত, দলের ওই তিন নেতা এমন অনেককে দলের নেওয়ার চেষ্টা করছেন, যাঁরা এক সময় বিজেপি কর্মীদের উপরে ‘অত্যাচারে’ দায়ী। 

যদিও ওই জেলা নেতা বলছেন, ‘‘দল শক্তিশালী করাই প্রাথমিক লক্ষ্য। রাজনীতিতে কোনও সমীকরণ স্থায়ী নয়। বিরোধীদের কেউ আমাদের দলে আসবেন, এটাই স্বাভাবিক। আমাদের মধ্যে যাঁরা আদতে মার খেয়েছেন, তাঁরা দলের ভাল চেয়ে সামনের দিকে তাকাচ্ছেন। অথচ, যাঁরা দলের কোনও কর্মসূচিতেই তেমন ভাবে কাজে আসেন না, তাঁরা সামাজিক মাধ্যমকে কাজে লাগিয়ে দলের মধ্যেই বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছেন।’’

তীব্র প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন বিজেপির জেলা সভাপতি শ্যামাপদ মণ্ডল। তিনি বলছেন, ‘‘এই সব ঘটনাকে কোনও ভাবেই প্রশ্রয় দেওয়া যাবে না। কারও কোনও বক্তব্য থাকতেই পারে। সে জন্য জেলা, প্রয়োজনে প্রদেশ নেতৃত্ব রয়েছেন। সেখানে না বলে সোশ্যাল মিডিয়ায় কটূক্তি করা অত্যন্ত অন্যায় এবং দলের জন্য ক্ষতিকারক। আমরা ওই পেজের অ্যাডমিন সহ যাঁরা দায়ী তাঁদের  বিরুদ্ধে দলগত ব্যবস্থা নেব।’’