• নিজস্ব সংবাদদাতা 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

অ্যাকাউন্ট জালিয়াতিতে দু’জনকে ধরল দিল্লি পুলিশ 

Delhi Police arrested 2 people
প্রতীকী চিত্র।

কমিশনের লোভে সাইবার অপরাধের জন্য কুখ্যাত ‘জামতাড়া গ্যাং’-কে সাহায্য করার অভিযোগে বীরভূমের দুই যুবককে গ্রেফতার করল দিল্লি পুলিশ।

ধৃত রঞ্জিত দে রাজনগর ব্লকের চন্দ্রপুর থানার মুক্তিপুরের বাসিন্দা এবং প্রকাশ মণ্ডল রাজনগর থানা এলাকার বাঁশবুনির বাসিন্দা। স্থানীয় পুলিশের সহায়তায় বুধবার ওই দু’জনকে সিউড়ি থেকে গ্রেফতার করেন দিল্লি পুলিশের সাইবার সেলের অফিসারেরা। বৃহস্পতিবার ধৃতদের সিউড়ি আদালতে তোলা হলে তাঁদের ৫ দিনের ট্রানজিট রিমান্ডের নির্দেশ দেন বিচারক। 

 পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, দিন কয়েক আগে দিল্লির এক ব্যক্তির অ্যাকাউন্ট থেকে প্রায় ৬৩ হাজার টাকার জালিয়াতি করা হয়। সেই বিষয়ে তদন্ত করতেই রঞ্জিতের হদিশ পায় দিল্লি পুলিশ। দিন কয়েক আগে দিল্লি পুলিশের একটি টিম বীরভূমে এসে তদন্ত শুরু করে। ওই টিমে থাকা এক অফিসারের দাবি, ধৃত রঞ্জিত ও প্রকাশ ‘জামতাড়া গ্যাং’-এর সঙ্গে যুক্ত।  পুলিশ সূত্রে জানা যাচ্ছে, সাইবার ক্রাইমের স্বর্গরাজ্য ঝাড়খণ্ডের জামতাড়া। দেশ জুড়ে ব্যাঙ্ক জালিয়াতি কিংবা অনলাইনে টাকা প্রতারণার অভিযোগের সঙ্গে এই চক্রের নাম জড়িয়ে। দিল্লি পুলিশের এক কর্তার দাবি, পুলিশ যাতে চিহ্নিত করতে না পারে, সে জন্য ওই চক্রের সদস্যরা নিজেদের অ্যাকাউন্টে এই টাকা সরাসরি ট্রান্সফার করে না। তাই তারা বিভিন্ন এলাকা থেকে গ্রাহক জোগাড় করে, যার অ্যাকাউন্ট মারফত টাকা লেনদেন করা যাবে। পরিবর্তে লেনদেন হওয়া টাকার ১০ শতাংশ কমিশন দেয় সেই ব্যক্তিকে। 

পুলিশের দাবি, রঞ্জিত তেমনই এক জন। তবে তার সঙ্গে সরাসরি জামতাড়া গ্যাং-এর যোগাযোগ নেই। প্রকাশ মণ্ডল রঞ্জিতের মতো গ্রাহক জোগাড় করার কাজ করে, যাদের অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে অর্থের লেনদেন হবে। দিল্লি পুলিশের দাবি, রঞ্জিতের অ্যাকাউন্ট থেকে গত ১৫ দিনে প্রায় ১৫ লক্ষ টাকার লেনদেন হয়েছে। কেবল সিউড়ি নয়, ওই জালিয়াতির ঘটনায় জামতাড়া থেকেও দু’জনকে গ্রেফতার করেছে দিল্লি পুলিশ।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন