• নিজস্ব সংবাদদাতা 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বাড়ি গিয়ে বর্জ্য সংগ্রহ রামপুরহাট পুরসভার

Door-to-door Waste collection
ব্যবস্থা: জঞ্জাল সংগ্রহ করতে রামপুরহাট শহরের বাড়িতে বাড়িতে এমন বালতিই দেওয়া পুরসভার উদ্যোগে। নিজস্ব চিত্র

জঞ্জাল সাফাই নিয়ে এমনিতেই বিস্তর অভিযোগ। তা থেকে রেহাই পেতে রামপুরহাট পুরসভা এ বারে বাড়ি বাড়ি জঞ্জাল সংগ্রহের নতুন পরিকল্পনা গ্রহণ করল। 

পুরসভা সূত্রে জানা গিয়েছে, বাড়ি বাড়ি জঞ্জাল সংগ্রহ করার জন্য নির্মল বাংলা মিশনে সলিড ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট প্রকল্পে স্টেট আর্বান ডেভলপমেন্ট এজেন্সির মাধ্যমে ৩৪ হাজার দু’ধরণের বালতি পাওয়ার কথা। দু’তিন দিন আগে ১৯ হাজার বালতি পুরসভায় এসে পৌঁছেছে। দু’ধরণের বালতির একটিতে কঠিন বর্জ্য জঞ্জাল ফেলা হবে। অন্যটিতে পচনশীল জঞ্জাল ফেলা হবে। দু’ধরণের বালতি পুরসভা এলাকার উপভোক্তাদের বাড়িতে থাকবে। পুরসভা থেকে বালতিগুলি উপভোক্তাদের দেওয়া হবে। পুরসভার সাফাই কর্মীরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে জঞ্জাল সংগ্রহ করবেন।    

পুরসভার প্রশাসক বোর্ডের চেয়ারপার্সন অশ্বিনী তিওয়ারির দাবি, ‘‘বাড়ি বাড়ি জঞ্জাল সংগ্রহের কাজ ঠিক ভাবে হলে জঞ্জাল সাফাই নিয়ে ক্ষোভ কমবে। নিকাশি নালার মধ্যেও জঞ্জাল পড়ে থাকবে না। ফলে নালা পরিস্কার করতেও সুবিধা হবে। কঠিন ও পচনশীল বর্জ্য পদার্থ আলাদা থাকায় সলিড ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট প্রকল্প ঠিক ভাবে কার্যকর করা যাবে।’’ পুরসভার স্যানিটরি ইন্সপেক্টর সুষেন মণ্ডল বলেন, ‘‘প্রতিটি ওয়ার্ডে জঞ্জাল সংগ্রহ করার জন্য দুটি করে গাড়ি দেওয়া হয়েছে। যেগুলি বড় ওয়ার্ড সেখানে তিনটি গাড়ি দেওয়া হয়েছে। তাতেও কোনও কোনও ওয়ার্ডে পুরোপুরি কাজ হচ্ছে না।’’ পুরসভা সূত্রে জানা যায়, পুর এলাকায় প্রতিটি বাড়ি থেকে জঞ্জাল সংগ্রহের ১০০ শতাংশ সম্পূর্ণ করতে গেলে আরও গাড়ি দরকার। সেই কারণে এখনই ১০০ শতাংশ জঞ্জাল স্ংগ্রহ সম্ভব নয়।  

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন