• নিজস্ব সংবাদদাতা 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সরু রাস্তায় দমকলের দেরি, ভস্মীভূত মণ্ডপ

Burned out Puja pandal
হাটতলা সর্বজনীন দুর্গাপুজোর মণ্ডপ। ছবি: সব্যসাচী ইসলাম

ভস্মীভূত হল রামপুরহাট শহরের ঐতিহ্যবাহী হাটতলা সর্বজনীন দুর্গাপুজোর মণ্ডপ। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে মণ্ডপে। দমকলের দুটো ইঞ্জিন পৌঁছনোর আগেই আগুনে পুড়ে যায় হয় মণ্ডপ। ক্ষতিগ্রস্ত হয় মণ্ডপের বৈদ্যুতিন আলো, প্রতিমা। কী ভাবে আগুন লাগল তার তদন্ত শুরু হয়েছে।

এমনিতেই হাটতলা ঘনবসতি পূর্ণ। মণ্ডপের আশপাশে হাটতলা এলাকার সোনার দোকান এবং কাপড়ের দোকান আছে। ঘনবসতি পূর্ণ এবং সরু রাস্তা হওয়ার জন্য দমকলের ইঞ্জিন ঢুকতে সময় লাগে। এলাকার বাসিন্দারা জানান, প্রথম দিকে আগুন নেভানোর জন্য রামপুরহাট ব্যাঙ্ক রোড দিয়ে ঢোকার চেষ্টা করে দমকলের ইঞ্জিন। রাস্তা ছোট হওয়ার জন্য ঢুকতে পারেনি। পরে স্থানীয় বাসিন্দারা এবং পুজো উদ্যোক্তারা দমকলের গাড়ি দেশবন্ধু রোড দিয়ে ঢোকানোর জন্য পুজোর কয়েকটি গেট ভেঙে দেন। কিন্তু, দমকলের ইঞ্জিন পুজো মণ্ডপের কাছাকাছি পৌঁছানর আগেই মণ্ডপের বেশির ভাগ অংশ পুড়ে যায়। এলাকার বাসিন্দাদের আশঙ্কা, আগুন আশপাশের এলাকায় ছড়িয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা ছিল। 

উদ্যোক্তারা জানান, মণ্ডপের উপরে তারপুলিন থেকে আগুন নীচে দ্রুত ছড়িয়ে যায়। সেই কারণে আগুন নেভানোর জন্য মণ্ডপে থাকা অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা কাজে লাগেনি। তাঁরা জানান, বুধবার দুপুরে প্রতিমা নিরঞ্জনের প্রস্তুতি চলছিল। তার আগেই এমন ঘটনা। এলাকার বাসিন্দাদের অবশ্য অভিযোগ, হাটতলা শহরের অন্যতম প্রধান বাজার। সেই বাজারেই দমকলের গাড়ি সহজে ঢুকতে পারে না। এই নিয়ে অতীতে বহু বার প্রশাসন থেকে পুরসভার দ্বারস্থ হয়েছেন স্থানীয়েরা। কাজ যে কিছু হয়নি এ দিনের ঘটনাই তার প্রমাণ।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন