ফেসবুক লাইভে দলবদল 
ফেসবুক লাইভে প্রতি সপ্তাহেই সকাল ও দুপুরে সাধারণ মানুষ তাঁদের সমস্যার কথা, যাবতীয় সুবিধা-অসুবিধা যাতে দলের নেতা-নেত্রীদের সঙ্গে আলোচনা করতে পারেন বা জানাতে পারেন তার ব্যবস্থাও করা হয়েছে বলে দল সূত্রে খবর।
BJP

চলছে অনুষ্ঠান। নিজস্ব চিত্র

এ বার গণ মাধ্যমের প্রচারকে মজবুত করতে ফেসবুক লাইভে বীরভূম জেলা বিজেপির নেতারা। নববর্ষের সকালেই ফেসবুক লাইভে দলীয় প্রচার শুরু করলেন স্থানীয় বিজেপি নেতারা। এ দিন পাড়ুইয়ের ২৬ জন তৃণমূল কর্মী বিজেপিতে যোগ দেন। এই দলবদলের লাইভ পোস্ট করে বিজেপির জেলা সভাপতি রামকৃষ্ণ রায় বলেন, ‘‘এই প্রথম আমি সোশ্যাল মিডিয়ায় লাইভ অনুষ্ঠানে এলাম, মানুষের কাছে মুহুর্তের মধ্যে বার্তা পৌঁছে দিতে  লাইভ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল, এছাড়াও ডিজিটাল ইন্ডিয়ার যুগে সকলের হাতেই আজ স্মার্ট ফোন। তাই এই ধরনের গণ মাধ্যম হল প্রচারের অন্যতম হাতিয়ার।’’ একই সঙ্গে বোলপুর লোকসভা কেন্দ্রের জন্য বিজেপির একটি হেল্পলাইন নম্বরও চালু করা হয় এ দিন। নির্বাচনের আগে বা পরে কোথাও কোনও সমস্যা হলে, কোনও ভোটার আক্রান্ত হলে বা নির্বাচন বিষয়ক যে কোনও পরামর্শ দিতে এই হেল্পলাইন নম্বর কাজ করবে বলে জানান রামকৃষ্ণবাবু। 

ফেসবুক লাইভে প্রতি সপ্তাহেই সকাল ও দুপুরে সাধারণ মানুষ তাঁদের সমস্যার কথা, যাবতীয় সুবিধা-অসুবিধা যাতে দলের নেতা-নেত্রীদের সঙ্গে আলোচনা করতে পারেন বা জানাতে পারেন তার ব্যবস্থাও করা হয়েছে বলে দল সূত্রে খবর। কবে কখন কোন নেতা ফেসবুকের এই লাইভ অনুষ্ঠানে থাকবেন তা আগাম জানানো হবে জেলা বিজেপির নিজস্ব ওয়েবসাইটের মাধ্যমে, ফেসবুকে পোস্ট করে বা হোয়াটঅ্যাপে।  এমনকি ভোটের আগে কবে কোন প্রার্থী কোথায় কখন প্রচার করবেন, কী ভাবে প্রচার করবেন, সভা করবেন কী না তার যাবতীয় তথ্যও জানতে পারবেন কর্মী-সমর্থকেরা। 

বিজেপির আইটি সেল সূত্রে জানা গিয়েছে, বোলপুর লোকসভার জন্য ৫৪৫টি হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ খোলা হয়েছে এবং প্রতিটা বিধানসভা এলাকার জন্য আলাদা আলাদা ফেসবুক পেজ খোলা হয়েছে। শুধু প্রচার নয়, সংগঠনের কাজও করছে এই গণ মাধ্যম, এমনই দাবি দলের আইটি সেলের। বোলপুর লোকসভার আইটি সেলের কনভেনার প্রতীক চক্রবর্তী বলেন, ‘‘রাজ্যে প্রথম এই প্রযুক্তিকে ব্যবহার করে বহু মানুষকে দেখিয়ে ২৬ জন কর্মীর দলে যোগদান হল। নবীন প্রজন্মের কাছ থেকে ভাল সাড়া মিলেছে এই ব্যবস্থায়।’’