অভিযোগ টোটোর সারথীকে
টোটো চালিয়ে ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে কোনও নেতাকে ঘোরার ব্যাপারটা কিছুটা অভিনব বলে মনে করছেন ঝালদার বাসিন্দাদের একাংশ।
Leader

প্রচার: চালকের আসনে ঝালদার পুরপ্রধান। নিজস্ব চিত্র

টোটো করে শহর চষছেন পুরপ্রধান। বৃহস্পতিবার সকালে ঝালদা দেখল এমনটাই। 

পুরুলিয়া লোকসভা কেন্দ্রে দলের প্রার্থী মৃগাঙ্ক মাহাতোর হয়ে প্রচার করতে বৃহস্পতিবার ঝালদার রাস্তায় নেমেছিলেন পুরপ্রধান তৃণমূলের প্রদীপ কর্মকার। তিনি জানান, ৮ এবং ৯ নম্বর ওয়ার্ডে প্রচারে বেরিয়েছিলেন টোটোর ট্যাবলো নিয়ে। তার মধ্যে প্রার্থীর সমর্থনে ফ্লেক্সে ছাপা বিজ্ঞাপন সাঁটা। চালকের আসনে তিনি নিজে।

কিছু দিন আগেই বাঁকুড়া লোকসভা কেন্দ্রে বিজেপির প্রার্থী সুভাষ সরকার প্রচারে নেমে টোটোর স্টিয়ারিং ধরেছিলেন। বীরভূমে তৃণমূলের প্রার্থী শতাব্দী রায়কেও সেই ভূমিকায় দেখা গিয়েছে। তবে টোটো চালিয়ে ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে কোনও নেতাকে ঘোরার ব্যাপারটা কিছুটা অভিনব বলে মনে করছেন ঝালদার বাসিন্দাদের একাংশ। 

দিল্লি দখলের লড়াইলোকসভা নির্বাচন ২০১৯ 

হঠাৎ এমন ভাবনা কেন? প্রদীপবাবু বলেন, ‘‘কর্মীদের আবদারে।’’ তিনি জানাচ্ছেন, কিছুটা আবদারে আর কিছুটা কৌতূহলে এর আগেও টোটোর স্টিয়ারিং ধরেছিলেন। চালানোর কৌশলটা সেই সূত্রে শেখা ছিল। প্রচারে নজর কাড়তে পেরেছেন। তবে বাসিন্দাদের অভাব অভিযোগও শুনতে হয়েছে পুরপ্রধানকে। তাঁর দাবি, হাউস ফর অল প্রকল্প, জলের সমস্যা, আর আবর্জনা সাফাই নিয়ে অনেকে নালিশ করেছেন। অনেকে পরামর্শ দিয়েছেন। প্রচার শেষে প্রদীপবাবু বলেন, ‘‘এক দিনে অনেকটা কাজ হল। প্রচারও করা হল। পুরশহরের অনেক খুঁটিনাটি সমস্যাও নজরে এল।’’