• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

দলের ভিতরের বিষয়ে প্রকাশ্যে আর মন্তব্য নয় বার্তা জেলা তৃণমূলে

tmc
প্রতীকী ছবি।

দলের অভ্যন্তরীণ বিষয় নিয়ে প্রকাশ্যে মুখ খোলা বন্ধ করতে দলীয় নেতা-কর্মীদের মঙ্গলবার কড়া বার্তা দিলেন বাঁকুড়া জেলা তৃণমূল সভাপতি শ্যামল সাঁতরা। এমনকি, দলের বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়াতেও বেফাঁস কিছু মন্তব্য করা যাবে না বলে সতর্ক করলেন তিনি। তৃণমূল ভবনে দলের নতুন জেলা কমিটির প্রথম বৈঠকের পরে এ দিন শ্যামলবাবু বলেন, “দলের অভ্যন্তরীণ বা সাংগঠনিক বিষয় নিয়ে কেবল জেলা সভাপতি ও মুখপাত্র ছাড়া, অন্য কেউ সংবাদমাধ্যমের সামনে মুখ খুলতে পারবেন না। সোশ্যাল মিডিয়াতেও দলীয় স্বার্থের পরিপন্থী কিছু মন্তব্য করা যাবে না। এটা রাজ্য নেতৃত্বের সিদ্ধান্ত। দলের নেতা-কর্মীদের এ দিন সে কথা জানিয়েছি।” তিনি জানান, কেউ নির্দেশ অমান্য করলে দল কড়া ব্যবস্থা নেবে।

জেলা তৃণমূলের অন্দরের খবর, নতুন ব্লক সভাপতিদের নাম ঘোষণা হওয়ার পরেই নানা জায়গা থেকে ক্ষোভ প্রকাশ্যে আসছে। ঘটনা হল, ব্লক সভাপতি বদলের দিন রাতেই মেজিয়ার জেমুয়ায় তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষ হয় বলে অভিযোগ। যদিও তা গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব বলে মানতে নারাজ মেজিয়ার ব্লক তৃণমূল নেতৃত্ব। কোতুলপুরের ব্লক সভাপতির পদ থেকে প্রবীর গড়াইকে সরিয়ে দেওয়াতেও বিতর্ক দানা বাঁধে। ব্লক সভাপতি ঘোষণার পরের দিনই জেলা তৃণমূলের অন্যতম সাধারণ সম্পাদক জয়ন্ত মিত্র শ্যামলবাবু ও রানিবাঁধের দলীয় বিধায়ক জ্যোৎস্না মান্ডির বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে সরব হন। তাঁর মন্তব্যের ভিডিয়ো ভাইরাল হয়ে পড়ায় দলে গুঞ্জন শুরু হয়। বিষয়টি নিয়ে শ্যামলবাবু ও জ্যোৎস্নাদেবী রাজ্য নেতৃত্বের কাছে নালিশও করেন।

ঘটনাচক্রে, এ দিন জেলা কমিটির বৈঠকে জয়ন্তবাবু ছিলেন না। শ্যামলবাবু বলেন, ‘‘উনি কেন আসেননি খবর নেব।” জয়ন্তবাবুর দাবি, “আমি প্রচণ্ড অসুস্থ। তাই বৈঠকে যেতে পারিনি।

এ দিকে বিধানসভা নির্বাচনের আগে সমাজমাধ্যমে দলীয় কর্মীদের আরও সক্রিয় হওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন শ্যামলবাবু। তৃণমূল সূত্রের খবর, এ দিনের বৈঠকে, বুথ, অঞ্চল, ব্লক ও বিধানসভা ভিত্তিক তৃণমূলের ফেসবুক পেজ চালু করার নির্দেশ দেন শ্যামলবাবু। যে কোনও কর্মসূচি ফেসবুকে পোস্ট করারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আগামী দশ দিনের মধ্যে প্রতিটি ব্লকে ‘ব্লক কোর কমিটি’ ও ‘ব্লক কমিটি’ গড়ে, সে তালিকা জেলাকে দেওয়ারও নির্দেশ দিয়েছেন শ্যামলবাবু। তিনি বলেন, “ফেসবুক পেজ আমাদের বহু ব্লকেই রয়েছে। সেখানে আরও বেশি সক্রিয় হতে বলেছি দলের কর্মীদের। দশ দিনের মধ্যে ‘ব্লক কোর কমিটি’ ও ‘ব্লক কমিটি’ গড়তে বলেছি।”

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন