দমকল মন্ত্রীকে সামনে পেয়ে তারাপীঠে এবার দমকল কেন্দ্র গড়ে তোলার প্রস্তাব দিল তারাপীঠ রামপুরহাট উন্নয়ণ পর্ষদ। শনিবার তারাপীঠে পুজো দিতে যান দমকল মন্ত্রী সুজিত বসু। পুজো দেওয়ার পরে তারাপীঠ রামপুরহাট উন্নয়ণ পর্ষদের কার্যালয়ে যান তিনি। সেখানে সুজিতবাবুই বলেন, ‘‘তারাপীঠ রামপুরহাট উন্নয়ণ পর্ষদের চেয়ারম্যান তথা মন্ত্রী আশিস বন্দ্যোপাধ্যায় তারাপীঠে পৃথক একটি দমকল কেন্দ্র খোলার ব্যাপারে প্রস্তাব দেন। তারাপীঠে প্রচুর ভক্ত সমাগম ঘটে। কৌশিকী অমাবস্যার সময় এর জন্যই দমকল দফতরকে বিশেষ প্রস্তুতি নিতে হয়। এই প্রস্তাবটি নিশ্চয়ই বিবেচনা করা হবে।’’

তারাপীঠে দমকল কেন্দ্র গড়ে তোলার জন্য প্রয়োজনীয় জমিও দেখা হচ্ছে বলে জানান মন্ত্রী আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি জানান, তারাপীঠে শ্রম দফতরের মতো বেশ কয়েকটি দফতর গেষ্ট হাউস তৈরি করার জন্য জায়গা চেয়েছেন। সেই জমির পাশাপাশি দমকল কেন্দ্র গড়ে তোলার জন্যও জমি দেখা হচ্ছে। দমকল কেন্দ্র গড়ে তোলার জন্য দশ থেকে বারো কাঠা জমি দরকার। জমি পাওয়া গেলে জেলাশাসকের মাধ্যমে দমকল দফতরে তা জানানো হবে। দমকল মন্ত্রী জানান, বীরভূম জেলার তিনটি মহকুমা শহর সিউড়ি, বোলপুর, রামপুরহাটে তিনটি দমকল কেন্দ্র আছে। সাঁইথিয়াতে একটি দমকল কেন্দ্রের কাজ প্রায় শেষ। কিছুদিনের মধ্যে চালু হয়ে যাবে। এছাড়া ইতিমধ্যে নলহাটি, মুরারই এবং দুবরাজপুর এই তিন জায়গায় দমকল কেন্দ্র গড়ে তোলার বিষয়ে প্রস্তাব রয়েছে। এর সঙ্গে যোগ হল তারাপীঠ। এদিনের বৈঠকে রামপুরহাট-২ ব্লকের বিএলএলআরও সৌমেন্দ্রনাথ সাহা উপস্থিত ছিলেন। বিএলএলআরও বলেন, ‘‘তারাপীঠ এলাকায় দমকল কেন্দ্র গড়ে তোলার জন্য জমির সন্ধান করে দেখা হবে।’’