• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

স্নানে নেমে বিপত্তি, কোপাইয়ে নিখোঁজ ছাত্র

search
উৎসুক: চলছে নিখোঁজ ছাত্রের খোঁজে তল্লাশি। ভিড় করেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। ছবি: বিশ্বজিৎ রায়চৌধুরী

সিউড়ি থেকে বন্ধুদের সঙ্গে কোপাইয়ে স্নান করতে এসে শান্তিনিকেতনের গোয়ালপাড়া ব্রিজ-এর কাছে তলিয়ে গেল দ্বাদশ শ্রেণির এক ছাত্র। বৃহস্পতিবার দুপুরের ঘটনা। নিখোঁজ ওই ছাত্রের নাম মহম্মদ আমান। বছর আঠেরোর আমানের বাড়ি সিউড়ির লালকুঠিপাড়ায়। সন্ধ্যা পর্যন্ত তল্লাশির পরেও খোঁজ মেলেনি তার। আমানের মা মহফুজ বানুর অভিযোগ, ‘‘এটা বন্ধুদের একটা চক্রান্তও হতে পারে।’’

পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, বীরভূম জেলা স্কুলের ছাত্র আমান। একমাত্র সন্তানকে নিয়ে লালকুঠিপাড়া এলাকায় ভাড়া বাড়িতে থাকেন মহফুজ বানু। তিনি জানান, বৃহস্পতিবার সকালে বোলপুর বেড়াতে যাচ্ছি বলে গাড়িতে চার বন্ধুর সঙ্গে বাড়ি থেকে বেরিয়ে পড়ে আমান। তিন জন আমানের সহপাঠী। অন্য জন কলেজ পড়ুয়া। সকলেরই বাড়ি সিউড়ির বিভিন্ন এলাকায়।

পুলিশ জেনেছে, বোলপুরের গোয়ালপাড়ার কাছে কোপাই নদীতে স্নান করতে নামে। সাঁতার না জানায় হঠাৎই বন্ধুদের হাত ছেড়ে তলিয়ে যায় আমান। প্রথমে বন্ধুরা উদ্ধারের চেষ্টা করে। পরে গ্রামবাসী ও আমানের বাড়ির লোককে খবর দেয়। খবর যায় শান্তিনিকেতন থানায়। পুলিশের উপস্থিতিতে বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের দল সন্ধ্যা পর্যন্ত আমানের খোঁজ পায়নি। পরে নামানো হয় ডুবুরিও। পরে এসে পৌঁছয় আসানসোলের বিপর্যয়ের মোকাবিলার দলও। রাত পর্যন্ত চলছে তল্লাশি।

আমানের মা বলেন, ‘‘সাড়ে এগারোটা নাগাদ ছেলেকে ফোন করেও পাইনি। তখন একে একে চার বন্ধুকেই ফোন করি। কেউ ফোন ধরেনি। পরে একটা অন্য নম্বর থেকে এক বন্ধু আমাকে ফোন করে বলে আমানকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।’’ তাঁর অভিযোগ, ‘‘ছেলে সাঁতার জানত না। সেটা ওর বন্ধুরাও জানত। তাই এটা একটা চক্রান্তও হতে পারে।’’

এক বন্ধু অবশ্য জানায়, সকলে মিলে বোলপুরে ঘুরতেই এসেছিল। কোপাইয়ে স্নান করে বাড়ি চলে যাওয়ার কথা ছিল। দু’জন নদীর পাড়ে বসে ছিল। বাকি তিন জন জলে স্নান করতে নেমেছিল। এক সময় বোঝা যায় কোনও ভাবে জলের তোড়ে তলিয়ে গিয়েছে আমান। ওই বন্ধুর কথায়, ‘‘সাঁতার না জানায় কোনও অসাবধানতায় এই দুর্ঘটনা ঘটেছে।’’ পুলিশ জানিয়েছে, কী ভাবে এই ঘটনা ঘটল তা জানার জন্য চার বন্ধু ও গাড়ির চালককে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন