• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

দ্বন্দ্ব বন্ধ করার কী দাওয়াই, নজর বৈঠকে

TMC
প্রতীকী চিত্র

আড়াই বছর পরে, কাল সোমবার পুরুলিয়া জেলা তৃণমূলের পূর্ণাঙ্গ জেলা কমিটির বৈঠক হতে যাচ্ছে। দল সূত্রের খবর, বৈঠকে জেলা কমিটির ১৮৬ জন সদস্য ছাড়া, সমস্ত ব্লক ও শহর সভাপতিদেরও ডাকা হয়েছে। জেলা তৃণমূল সভাপতি গুরুপদ টুডু বলেন, ‘‘সোমবার দলের পূর্ণাঙ্গ জেলা কমিটির বৈঠক ডাকা হয়েছে। ২০১৮-র গোড়ায়, গত পঞ্চায়েত ভোটের আগে শেষ বার এই বৈঠক হয়েছিল।’’১০ সেপ্টেম্বর দলের পূর্ণাঙ্গ জেলা কমিটি ও ব্লক সভাপতিদের নামের তালিকা ঘোষণা করা হয়। তার পরেই কিছু ব্লক সভাপতির নাম নিয়ে আপত্তি ওঠে স্থানীয় নেতা-কর্মীদের একাংশের মধ্যে। তবে দলের জেলা সভাপতির স্পষ্ট ঘোষণা, ‘‘সবাইকে বলা হয়েছে এক সঙ্গে সমন্বয় রেখে কাজ করতে হবে।’’ দলের অন্দরের খবর, সম্প্রতি ব্লক সভাপতিদের নিয়ে বৈঠক করে জেলা সভাপতি-সহ জেলা নেতৃত্ব জানিয়ে দিয়েছেন, কোনও রকম গোষ্ঠী-কোন্দল বরদাস্ত করা হবে না। 

এই জেলায় এমন অভিযোগ আগেও উঠেছে, কোনও কোনও ব্লক সভাপতি তাঁর অনুগামী ছাড়া, অন্য কর্মীদের পাত্তা দিতেন না। কোথাও বা স্থানীয় বিধায়কের সঙ্গে ব্লক সভাপতির দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে আসায় বিড়ম্বনায় পড়তে হয়েছে নেতৃত্বকে। এমনকি, কোনও কোনও ব্লকের ক্ষমতাসীন নেতা, দলের জেলা কমিটির বিভিন্ন পদাধিকারীকেও গুরুত্ব দিতেন না বলে অভিযোগ। জেলা নেতৃত্বের একাংশ জানাচ্ছেন, বৈঠকে ব্লক সভাপতিদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, দলের সর্বস্তরের কর্মীদের নিয়ে চলতে হবে। নিজস্ব অনুগামীদের নিয়ে কাজকর্ম মেনে নেওয়া হবে না। দলের স্বার্থবিরোধী যে কোন কাজই দলবিরোধী বলে বিবেচিত হবে। জেলা সভাপতি বলেন, ‘‘ব্লক সভাপতিদের নিয়ে বৈঠকে সবাইকে এক সঙ্গে নিয়ে চলার বার্তা দেওয়া দেওয়া হয়েছে। কোনও গোষ্ঠী রাজনীতিকে প্রশ্রয় দেওয়া হবে না। কোনও নেতা বা দলের সঙ্গে জড়িত কেউ দলবিরোধী কাজ করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’’গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরে একই ব্লকে দলের দু’টি পৃথক কর্মসূচি নিতেও আগে দেখা গিয়েছে। দলের অন্দরের খবর, সিদ্ধান্ত হয়েছে, কোনও কর্মসূচি নেওয়া হলে তা যেমন সংশ্লিষ্ট ব্লকের কর্মীদের জানাতে হবে, তেমনি জানাতে হবে সংশ্লিষ্ট ব্লকের কো-অর্ডিনেটরকে। কো-অর্ডিনেটর থেকে জেলা সভাপতি ও দলের মুখপাত্রের কাছে সমস্ত ব্লকের সমস্ত কর্মসূচির খুঁটিনাটি তথ্য থাকবে। জেলা নেতৃত্বের একটি সূত্রের খবর, সোমবারের বৈঠকে এই বিষয়গুলিই জানানোর পাশাপাশি আগামী বিধানসভা নির্বাচনের কৌশল নিয়েও আলোচনা হতে পারে। দলের জেলা মুখপাত্র নবেন্দু মাহালি বলেন, ‘‘পূর্ণাঙ্গ জেলা কমিটির বৈঠকে প্রায় ২০০ জন উপস্থিত থাকবেন। সেই অনুযায়ী প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন