মাধ্যমিক পরীক্ষার দিনগুলিতে জেলা জুড়ে বিভিন্ন রাস্তায় যানজট রুখতে পথে নামবেন ৫ হাজার তৃণমূল কর্মীও। যান নিয়ন্ত্রণে প্রয়োজনে ট্রাফিক পুলিশ ও সিভিককর্মীদের সাহায্য করবেন তাঁরা। দলীয় সূত্রেই এ কথা জানানো হয়েছে। জানা গিয়েছে, তাঁদের সবার বুকে থাকবে দলের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের ছবি দেওয়া ব্যাজ।

গত বৃহস্পতিবার জেলা কমিটির বৈঠকে পরীক্ষার্থীদের সুবিধায় দলীয় কর্মীদের তৎপর হওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন অনুব্রত। তার পরিপ্রেক্ষিতে প্রতিটি ব্লকের তৃণমূলকর্মীদের স্বেচ্ছাসেবকের ব্যাজ দেওয়া হয়েছে। শুধু যানজট রোখাই নয়, পরীক্ষার্থী ও অভিবাবকদের সাহায্যের জন্য প্রতিটি পরীক্ষাকেন্দ্রের কাছে থাকবে তৃণমূলের শিবির। দলীয় সূত্রে জানানো হয়েছে, অভিভাবকদের জন্য সেখানে চা, জল, মিষ্টির ব্যবস্থা  রাখা হবে। কোনও পরীক্ষার্থী পরীক্ষাকেন্দ্রে পৌঁছতে গিয়ে সমস্যায় পড়লে তাকে নিয়ে আসার জন্যেও সব রকম  ব্যবস্থা রাখা হবে। কোনও পরীক্ষার্থী আচমকা অসুস্থ হলে তার চিকিৎসার ব্যবস্থা করতেও প্রস্তুত তৃণমূল। তৃণমূলের বীরভূম জেলা সাধারণ সম্পাদক সুদীপ্ত ঘোষ বলেন, ‘‘প্রতিটি ব্লকেই দলীয় কর্মীরা মঙ্গলবার রাস্তায় নামছেন। মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের যাতে কোনও অসুবিধা না হয়, সে দিকে নজর রাখবেন তাঁরা।’’

তবে তৃণমূলের এই কর্মসূচি ঘিরে রাজনীতি দেখছেন বিরোধীরা। সিপিএমের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রামচন্দ্র ডোম বলেন, ‘‘এ সব রাজনৈতিক দলের কাজ নয়। কোনও স্বেচ্ছাসেবী বা ছাত্র সংগঠন এমন কর্মসূচি করতে পারে।’’ বিজেপির জেলা সভাপতি রামকৃষ্ণ রায় বলেন, ‘‘ভোট টানতেই এমন কাজ করছে তৃণমূল।’’ বিরোধীদের অভিযোগ উড়িয়ে জেলা পরিষদ সভাধিপতি বিকাশ রায়চৌধুরী বলেন, ‘‘তৃণমূলের জন্মলগ্ন থেকেই এ কাজ করা হচ্ছে। আমরা ভোটের কথা ভাবি না। ছাত্রছাত্রীদের বড় পরীক্ষা এটা। তাদের সুবিধা-অসুবিধার দিকে তাকিয়েই দল এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে।’’