বিশ্বভারতীর বিভিন্ন অনুষ্ঠান ও কর্মসূচি জনমানসে আরও বেশি করে ছড়িয়ে দিতে এ বার সোশ্যাল মিডিয়াকেও ব্যবহার করবেন কর্তৃপক্ষ। মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের নির্দেশিকা মেনেই এই পদক্ষেপ বলে খবর। 

গত মাসে মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের তরফ থেকে সমস্ত কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়গুলিকে সোশ্যাল মিডিয়ার সঙ্গে যুক্ত হয়ে আরও বেশি করে জনসংযোগ বাড়াতে বলা হয়েছে। বিশ্বভারতীতেও এই মর্মে নির্দেশিকা পাঠানো হয়েছে। বিশ্বভারতী সূত্রে জানা গিয়েছে, কর্তৃপক্ষকে জনসংযোগ বাড়াতে দ্রুত ফেসবুক, টুইটার এবং ইনস্টাগ্রাম খোলার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। অ্যাকাউন্ট খোলার সঙ্গে সঙ্গে ছাত্রছাত্রীসহ বিশ্বভারতী পরিবারের সকলকে যুক্ত করতে বলা হয়েছে। 

বিশ্বভারতীর যাবতীয় অনুষ্ঠান সূচি থেকে শুরু করে বিভিন্ন নির্দেশিকা, প্রতি সপ্তাহের ইতিবাচক ঘটনা বা খবর, বিভিন্ন রকমের ইভেন্ট প্রচার করতে বলা হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। সোশ্যাল সাইটগুলি চালানোর জন্য মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের তরফ থেকে একজনকে মনোনীত করতে এবং বিভিন্ন বিষয় নিয়ে প্রচার করতেও বলা হয়েছে। বিশ্বভারতীর জনসংযোগ আধিকারিক অনির্বাণ সরকারকে এর দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এত দিন বিশ্বভারতীর যাবতীয় তথ্য ওয়েবসাইটের মাধ্যমেই জানতে হত। এ বার থেকে অফিশিয়াল ওয়েব-এর সঙ্গে সহায় হবে ওই অ্যাকাউন্টগুলিও।

জনসংযোগ আধিকারিক অনির্বাণ সরকার বলেন, ‘‘মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের নির্দেশিকা আমরা হাতে পেয়েছি। খুব তাড়াতাড়ি বিশ্বভারতীর অফিশিয়াল ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট খোলা হবে। বিশ্বভারতীর নানা অনুষ্ঠান সূচি সহ বিভিন্ন 

বিষয়ে নির্দেশিকা এ বার আমরা সোশ্যাল সাইটে দিয়ে দেব।’’