Advertisement
০৬ ডিসেম্বর ২০২২

স্বচ্ছ ভারত গড়তে বারাণসীর গঙ্গার ঘাট পরিষ্কার মোদীর

স্বচ্ছ ভারত অভিযানে নেমে আগেই হাতে তুলে নিয়েছিলেন ঝাড়ু। এ বার গঙ্গার ঘাট পরিষ্কারে তুলে নিলেন কোদাল। শনিবার সকালে বারাণসীর অসি ঘাট এমনই দৃশ্যের সাক্ষী থাকল। নিজের লোকসভা কেন্দ্রে স্বচ্ছ ভারত অভিযানের সূচনা করে প্রকল্পের ‘নিয়ম’ অনুযায়ী ন’জনকে নিয়োগ করেছেন প্রধানমন্ত্রী। এঁদের মধ্যে রয়েছেন ক্রিকেটার মহম্মদ কাইফ, সুরেশ রায়না, গায়ক কৈলাশ খের, মনোজ তিওয়ারি, লেখক মনু শর্মা প্রমুখ।

চলছে মোদীর ঘাট পরিষ্কার। ছবি: পিটিআই।

চলছে মোদীর ঘাট পরিষ্কার। ছবি: পিটিআই।

সংবাদ সংস্থা
শেষ আপডেট: ০৮ নভেম্বর ২০১৪ ১৫:৫০
Share: Save:

স্বচ্ছ ভারত অভিযানে নেমে আগেই হাতে তুলে নিয়েছিলেন ঝাড়ু। এ বার গঙ্গার ঘাট পরিষ্কারে তুলে নিলেন কোদাল। শনিবার সকালে বারাণসীর অসি ঘাট এমনই দৃশ্যের সাক্ষী থাকল। নিজের লোকসভা কেন্দ্রে স্বচ্ছ ভারত অভিযানের সূচনা করে প্রকল্পের ‘নিয়ম’ অনুযায়ী ন’জনকে নিয়োগ করেছেন প্রধানমন্ত্রী। এঁদের মধ্যে রয়েছেন ক্রিকেটার মহম্মদ কাইফ, সুরেশ রায়না, গায়ক কৈলাশ খের, মনোজ তিওয়ারি, লেখক মনু শর্মা প্রমুখ। কিন্তু এই তালিকায় সবচেয়ে বড় চমক রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদব। তবে এ নিয়ে কোনও মন্তব্য করেননি অখিলেশ।

Advertisement

বারাণসী সফরের দ্বিতীয় দিনে এ দিন বিশেষ পুজো দিতে অসি ঘাটে পৌঁছন প্রধানমন্ত্রী। প্রায় ১৫ মিনিট শহরের প্রাচীনতম ঘাট পরিষ্কার করে তিনি বলেন, “কাশীর বিভিন্ন ঘাট পরিষ্কার করার জন্য এখানকার বিভিন্ন সংগঠন আমার কাছে এক মাস সময় চেয়েছে। আশা করি তারা কথা রাখবে।” এ দিন দুপুরেই দিল্লি রওনা হয়েছেন তিনি।

শুক্রবার সন্ধ্যায় নিজের লোকসভা কেন্দ্রে এক প্রশাসনিক বৈঠকে কাশী শহরকে উন্নত করা হবে বলে ঘোষণা করেন তিনি। এ ক্ষেত্রে ভূমিকম্প বিধ্বস্ত ভুজের মডেল অনুসরণ করার কথাও বলেছেন প্রধানমন্ত্রী। শহরকে উন্নত করতে এক গুচ্ছ প্রকল্পের কথা ঘোষণা করেন মোদী। এর মধ্যে পরিবেশ বান্ধব ব্যাটারিচালিত গাড়ি থেকে শুরু করে রয়েছে ‘প্যালেস অন হুইলস’-এর ধাঁচে একটি ট্রেনের প্রস্তাবও। দিল্লি থেকে ইলাহাবাদ এবং অযোধ্যা হয়ে বারাণসী পর্যন্ত যাবে সেই ট্রেন। শহরের প্রত্যেক স্কুলে ছাত্র এবং ছাত্রীদের জন্য আলাদা শৌচাগার তৈরির পাশাপাশি বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে ওয়াই-ফাই চালু করার প্রস্তাবও দেন তিনি। শুক্রবারই লালপুরে তাঁতশিল্পীদের জন্য একটি বাণিজ্য কেন্দ্রের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। তাঁর কথায়, “কৃষিকাজের পরে বস্ত্রশিল্পেই সবচেয়ে বেশি মানুষের কর্মসংস্থান হয়।” পূর্ব উত্তরপ্রদেশের ১৬টি জেলার ব্যাঙ্কের রুগণ দশা কাটাতে ২,৩৭৫ কোটি টাকার প্যাকেজও ঘোষণা করেছেন তিনি।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.