Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২১ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

রাজীব দাস হত্যায় দোষী সাব্যস্ত তিন, শুক্রবার সাজা ঘোষণা

নিজস্ব সংবাদদাতা
১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ১২:১৬

ভাইয়ের হত্যাকারীদের ফাঁসি চেয়েছে দিদি। চরম শাস্তি চেয়েছে নিহতের মা-ও। সাজা আপাতত না শোনালেও রাজীব দাস হত্যায় মূল অভিযুক্তদের তিন জনকেই দোষী সাব্যস্ত করল বারাসত আদালত। বৃহস্পতিবার এই রায় দেন অতিরিক্ত জেলা বিচারক প্রবীরকুমার মিশ্র। শুক্রবার সকালে তাদের সাজা ঘোষণা করা হবে।

ঠিক চার বছর আগে ২০১১-এর ১৪ ফেব্রুয়ারি রাতে বারাসতের কাছারি ময়দানের কাছে খুন হন সে বারের মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী রাজীব দাস। দিদি রিঙ্কু দাসকে স্টেশন থেকে নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে তিন মদ্যপ দুষ্কৃতীর হাতে আক্রান্ত হয় তারা। দুষ্কৃতীরা দিদির শ্লীলতাহানির চেষ্টা করায় তার প্রতিবাদ করতে গিয়েছিলেন বছর ষোলোর ওই কিশোর। প্রতিবাদের ‘পুরস্কার’ হিসাবে মিলেছিল মারধর। পিটিয়ে, কুপিয়ে মারাত্মক জখম রাজীবকে রাস্তায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায় অভিযুক্তরা। প্রথমে বারাসত হাসপাতাল এবং পরে আর জি করে নিয়ে যাওয়া হলেও বাঁচানো যায়নি রাজীবকে। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে মৃত্যু হয় তার। সে দিন রাতে যখন ভাইকে রাস্তায় ফেলে মারছে দুষ্কৃতীরা, তখন সাহায্যের জন্য ঢিল ছোড়া দূরত্বে অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের বাংলোর রক্ষীদের কাছে গিয়েছিলেন রিঙ্কু। কিন্তু বন্দুকধারী সেপাইদের কাছ থেকে কোনও সাহায্যই পাওয়া যায়নি বলে অভিযোগ। ঘটনার পর থেকেই প্রতিবাদ শুরু হয় রাজ্য জুড়ে। প্রাথমিক ভাবে পুলিশ তদন্ত শুরু করলেও কিছু দিন পরেই তদন্তভার নেয় সিআইডি। গ্রেফতার করা হয় মূল তিন অভিযুক্ত বিশ্বনাথ চট্টোপাধ্যায়, মিঠুন দাস এবং মনোজিত্ বিশ্বাসকে। তাদের বিরুদ্ধে খুন, শ্লীলতাহানি-সহ একাধিক ধারায় মামলা করা হয়। মাস দু’য়েকের মধ্যেই অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করা হয়। এদের তিন জনকেই এ দিন দোষী সাব্যস্ত করল আদালত।

অভিযুক্তদের দোষী সাব্যস্ত করায় খুশি রাজীবের দিদি রিঙ্কু দাস।। এ দিন আদালত চত্বরে তিনি বলেন, “আদালত তিন জনকে দোষী সাব্যস্ত করায় খুশি হয়েছি। আশা করি তাদের ফাঁসির সাজাই হবে।”

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement