নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে নয়ানজুলিতে যাত্রিবোঝাই বাস উল্টে মৃত্যু হল ৮ জনের। আহত হয়েছেন ৪০ জন। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৭টা নাগাদ দুর্ঘটনাটি ঘটে পূর্বমেদিনীপুরের তমলুক থানার নিমতৌড়ির কাছে হলদিয়া-মেচেদা ৪১ নম্বর জাতীয় সড়কে। পুলিশ জানিয়েছে, মিরগোদা থেকে হাওড়ার দিকে যাচ্ছিল বাসটি। নিমতৌড়ির কাছে হাওড়ার দিকে যাওয়া একটি লরিকে বাঁ পাশ দিয়ে ওভারটেক করতে যাওয়ার সময় জাতীয় সড়কের ধারে থাকা একটি গর্তকে বাঁচাতে গিয়ে প্রথমে লরিটিকে ধাক্কা মারে। তার পর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাসটি রাস্তার ধারে থাকা গাছে ধাক্কা মেরে নয়ানজুলিতে উল্টে যায়। বাসের তলায় চাপা পড়েই ঘটনাস্থলে মৃত্যু হয় পাঁচ জনের।  তমলুক জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে মৃত্যু হয় আরও ৩ জনের। আহতদের মধ্যে ১২ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গিয়েছে। তাঁদের চিকিত্সার জন্য কলকাতায় স্থানান্তরিত করা হয়েছে। পুলিশ আরও জানিয়েছে, আহত এবং মৃতেরা সকলেই কাঁথির বাসিন্দা। তবে এঁদের পরিচয় জানা যায়নি। পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়েছেন পুলিশের পদস্থ কর্তারা।


আহতদের তমলুক জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। 

দুর্ঘটনাগ্রস্ত বাসটির এক যাত্রী জানিয়েছেন, নন্দকুমার থেকেই বাসটি খেজুরি-হাওড়া রুটের একটি বাসের সঙ্গে রেষারেষি করছিল। প্রচন্ড গতিতে চলছিল বাসটি। নিমতৌড়ির ঠিক এক কিলোমিটার আগে একটি লরিকে বাঁ পাশ দিয়ে ওভারটেক করতে গিয়েই নিয়েন্ত্রণ হারিয়ে নয়ানজুলিতে উল্টে যায়।  

 

ছবি: পার্থপ্রতিম দাস।