বরুণ বিশ্বাস, সৌরভ চোধুরী, আমিনুল ইসলামের পর ফের দুষ্কৃতীদের রোষে আরও এক প্রতিবাদী।

জুয়ার ঠেকের প্রতিবাদ করায় বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে গিয়ে খুন করা হল শেখ মফিজুল বলে বছর আঠারোর এক তরুণকে। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার রাতে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বজবজে। পুলিশ জানিয়েছে, নিহত ওই তরুণ পেশায় রঙের মিস্ত্রি। তাঁর বাড়ি বজবজ থানা এলাকার বিশ্বাসপাড়ায়। এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত পাঁচ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

কয়েক দিন ধরে ওই তরুণের বাড়ির কাছে একটি মেলা চলছিল। নিহতের পরিবারের অভিযোগ, ওই মেলায় জুয়ার ঠেক দেখে শুক্রবার রাতে প্রতিবাদ করেন তিনি। এর পর মেলা দেখে ওই রাতেই বাড়ি ফিরে আসেন তিনি। কিছু ক্ষণ পর তাঁর বাড়িতে হাজির হয় আক্রম নামে আরও এক যুবক। আক্রমের সঙ্গে ছিল জনা কয়েক যুবক। তাঁরা প্রত্যেকেই অসামাজিক কার্যকলাপের সঙ্গে যুক্ত বলে অভিযোগ এলাকার বাসিন্দাদের। মফিজুলকে জোর করে বাড়ি থেকে মেলার মাঠে নিয়ে আসে ওই যুবকেরা। জুয়াকে কেন্দ্র করে সশস্ত্র ওই যুবকদের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়েন মফিজুল। তখন তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে দুষ্কৃতীরা। ঘটনাস্থলেই লুটিয়ে পড়ে মফিজুল। অভিযোগ, এলাকার বাসিন্দাদের তাড়ায় মফিজুলের দেহ নিয়ে পালাতে যায় অভিযুক্তেরা। পুকুরে অস্ত্রও ফেলে দেয় তারা। কিন্তু স্থানীয়দের তত্পরতায় দেহ নিয়ে পালাতে পারেনি দুষ্কৃতীরা। ধরা পড়ে চার অভিযুক্ত। শনিবার সকালে ধরা পড়ে আরও এক যুবক। কিন্তু এখনও পলাতক প্রধান অভিযুক্ত আক্রম। ধৃতদের কাছ থেকে দু’টি ওয়ানশটার উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, আক্রমের খোঁজে তল্লাশি চালানো হচ্ছে।