তাঁর দুশ্চিন্তা পুরোপুরি কেটে গিয়েছে কি না, জানা যায়নি!

রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনের চতুর্থ দফায় তাঁর বিধানসভা আসনে ভোট হয়ে গিয়েছে।

কিন্তু তিনি নিজে যে বিধানসভা আসনের ভোটার, সেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্বাচনী কেন্দ্র ভবানীপুরের জোট প্রার্থী দীপা দাশমুন্সি এখন দিন কাটাচ্ছেন দারুণ দুশ্চিন্তায়।

ভবানীপুর আসনে ভোট আগামী শনিবার। কিন্তু এখন থেকেই গভীর দুশ্চিন্তায় দীপা, ভোটের দিনে বুথে বুথে হামলার ভয়ে।

দীপার আশঙ্কা, আগামী শনিবার, ভোটের দিনে ভবানীপুর কেন্দ্রে বড় ধরনের হামলার ঘটনা ঘটতে পারে। আর তার জন্য যতটা সম্ভব প্রভাব খাটাতে পারেন ভবানীপুর কেন্দ্রের ভোটার ও তৃণমূল কংগ্রেস নেতা মদন মিত্র।

আর তাঁর সেই আশঙ্কার কথা একেবারে চিঠি লিখেই নির্বাচন কমিশনকে জানিয়েছেন জোট প্রার্থী দীপা দাশমুন্সি।

দেশের মুখ্য নির্বাচন কমিশনার নসীম জৈদীকে দেওয়া সেই চিঠিতে কী লিখেছেন দীপা?

লিখেছেন, ‘‘ভোটের দিন কড়া পাহারায় ঘিরে রাখা হোক মদন মিত্রকে। তিনি এসএসকেএম হাসপাতাল থেকেও ভবানীপুর কেন্দ্রের ভোটে প্রভাব খাটাতে পারেন। তাই ওঁর (মদন মিত্র) ঘরে লাগানো হোক সিসিটিভি, যাতে ওঁর (মদনবাবু) ওপর সর্ব ক্ষণ নজর রাখা যায়। মদনবাবু যাতে ভোটের দিন কোনও প্রভাব খাটাতে না পারেন, কমিশন তা সুনিশ্চিত করুক।’’

আরও পড়ুন- আমাকে হারাতেই নেমেছে তাজা নেতা, রাগ রেজ্জাকের

মদনের ‘ভয়ে’ থরহরিকম্প বিজেপি শিবিরও!

বিজেপি-র রাজ্য নেতা জয়প্রকাশ মজুমদার বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন, তাঁরাও ভবানীপুর কেন্দ্রে ভোটের দিন মদনবাবুকে কড়া পাহারায় ঘিরে রাখার দাবি জানাতে যাবেন নির্বাচন কমিশনে, আগামী কাল।

তবে তাঁদের দাবিটা হবে একটু অন্য রকমের। তাঁরা চাইবেন, কেন্দ্রীয় বাহিনীর কড়া পাহারায় ওই দিন ঘিরে রাখা হোক জেল-বন্দি তৃণমূল নেতা মদন মিত্রকে।