অভিনেতা বলে রাজনীতিতে আসতে বাধা কোথায়? রেজ্জাক মোল্লার আক্রমণের জবাব দিলেন মুনমুন সেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় হলদিয়ার ব্রজলালচকে দলীয় এক সভায় মুখ খুললেন তৃণমূলের তারকা সাংসদ।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, “আমি বিভিন্ন সময় শুনি বিরোধীরা বলছেন অভিনেতা অভিনেত্রীদের দলে নিয়ে তৃণমূল কী করবে? আমি বলি দলের কাজ তো খুব সোজা, মানুষের ভালো কাজ করা। এটা শিখে নিতে কতক্ষণ!’’ এ দিন মহিষাদলের তৃণমূল প্রার্থী সুদর্শন ঘোষদস্তিদারের সমর্থনে প্রচারে এসেছিলেন মুনমুন সেন এবং কাকলি ঘোষদস্তিদার। সভার পরেই রেজ্জাক প্রসঙ্গে মুনমুনকে ছেঁকে ধরেন সাংবাদিকরা। স্বতঃস্ফূর্তভাবেই মুনমুন জবাব দেন, “হয়তো ওঁর তরফ থেকে উনি (রেজ্জাক মোল্লা) ঠিকই বলেছেন। উনি একদম গ্রাম্য মানুষ। হয়তো কোনও অভিনেতা অভিনেত্রী দেখেননি আগে।” শুধু তাই নয়, আরও একধাপ এগিয়ে মুনমুন দাবি করেন, আমরা এলে ভিড় বাড়ে। তখন রেজ্জাক মোল্লা মুখ খুলতে পারেন।

কিন্তু দলীয় সাংসদের বিরুদ্ধেই কেন এমনভাবে মুখ খুললেন রেজ্জাক? মুনমুনের কটাক্ষ, “উনি দীর্ঘদিন অন্য দলে ছিলেন। হয়তো সে জন্য ভুলে গিয়েছিলেন। ওঁকে ক্ষমা করে দিলাম, ব্যাস।” তবে রেজ্জাক মোল্লা যে ব্যক্তিগতভাবে তাঁর কাছে ক্ষমা চেয়েছেন, সে কথাও স্বীকার করেছেন মুনমুন সেন। সে ক্ষেত্রে তাঁর দাবি, ‘‘ওঁর বিবেক এই মন্তব্যকে সমর্থন করে না বলেই উনি ক্ষমা চেয়েছেন।’’ তবে রূপা গাঙ্গুলি প্রসঙ্গে কোনও মন্তব্য করতে চাননি সাংসদ।

সভা শেষে নারদ ইস্যুতে সাংবাদিকদের প্রশ্নের অপর সাংসদ কাকলি ঘোষদস্তিদার বলেন, “বিরোধীরা সমালোচনার ইস্যু না-পেয়ে এ সব করছে। এটা (নারদ) বিচারাধীন বিষয়। বিচার শেষে দেখবেন বিরোধীরা মুখ লোকানোর জায়গা পাবে না।”