×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৪ জুন ২০২১ ই-পেপার

আমাকে সেলফিতে থাকতে দাও

২৩ জুলাই ২০১৪ ০০:০০
মেরিল স্ট্রিপ ও হিলারি ক্লিন্টন

মেরিল স্ট্রিপ ও হিলারি ক্লিন্টন

বারাক ওবামা, প্রিয়ঙ্কা চোপড়া, বিরাট কোহলি, অ্যাঞ্জেলিনা জোলি এঁদের মধ্যে মিল কোথায়?

হঠাত্‌ প্রশ্নটা শুনে চমকে যেতে পারেন।

‘দাদাগিরি’তে কিন্তু এমন প্রশ্ন পেতেই পারেন। উত্তরটা তাই জেনে রাখাই ভাল।

Advertisement



উল্লেখ করা ওঁরা সবাই আসলে মেতেছেন সেলফিতে। গত একসপ্তাহে একটা না একটা সেলফি পোস্ট করেছেন। অভিধান অনুযায়ী সেলফি হল, ‘স্মার্টফোন বা ওয়েবক্যামে তোলা নিজের কোনও ছবি, যা আপলোড করা হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে’।

অভিধান পড়ে চমকে যাবেন না! গত বছরই অক্সফোর্ড ডিকশনারিতে ঢুকে গিয়েছে ‘সেলফি’। এমনকী ২০১৩-র ‘ওয়ার্ড অব দ্য ইয়ার’ও হয়েছে সে। টাইম ম্যাগাজিনের ২০১২-র ‘বাজ় ওয়ার্ড অব দ্য ইয়ার’য়ের পালকও জুড়ে গিয়েছে সেলফির মুকুটে।

সেলফি নিয়ে এত হইচই। কিন্তু সে স্রোতে তিনিও ভাসলেন কেন? “সেলফির অনেক সুবিধা। ছবি তুলে দেওয়ার জন্য অন্যকে ডাকতে হবে না। নিজেই তুলে নেওয়া যায়। অনেকে বলেন গার্লফ্রেন্ডের সঙ্গে ঘনিষ্ট মুহূর্ত সেলফি-বন্দী করতে দারুণ লাগে। আমারও একই মত,” হাসতে হাসতে বলছিলেন অঙ্কুশ। প্রতি সপ্তাহেই একটা করে সেলফি আপলোড করেন নিয়ম করে তিনি। হোয়াটস্‌অ্যাপের ডিসপ্লে পিকচারও সেলফি। সঙ্গে যোগ করলেন, “এখন তো ফ্যানরা আর অটোগ্রাফ চায় না। যেখানেই যাই একটাই কথা, ‘প্লিজ, আমার সঙ্গে একটা সেলফি তুলবেন?’”

সেলফির টিপস্‌

যিশু সেনগুপ্ত

• ব্যাকলাইট যত কম থাকবে তত ভাল

• ক্যামেরা আইলেভেলে থাকা দরকার। ডাবল চিন তাতে দেখা যাবে না

• ব্যাকগ্রাউন্ড ভাল হলে তবেই সেটা রাখবেন

• মাথা একটু টিল্ট করলেই সেলফি ভাল হবে

• একটু দূর থেকে ছবি তুলুন। কাছ থেকে তোলা ছবি ডিসটর্টেড হয়ে যায়

• মেকআপ না থাকলে ইন্সটাগ্রামে ফিল্টার ব্যবহার করে টাচ আপ করে নিন

আসলে নিজের ছবি তুলতে কে না চায়? আগে ক্যামেরার লেন্স আর ডিসপ্লে ছিল বিপরীত দিকে। তাই নিজের ছবি তুলতে হলে আন্দাজ বা ট্রাইপডের উপর ভরসা করতে হত। স্মার্টফোন এসে, বিশেষ করে সামনের দিকের ক্যামেরায় ছবি তোলার কোনও অসুবিধা থাকল না। নিজেকে কেমন দেখাচ্ছে সেটা লোককে দেখানো আরও সহজ হয়ে গেল। তবে আর একটা কারণও আছে, নিজের লোকেশন জানানো। মানে, ‘এই দ্যাখো আমি আইফেল টাওয়ারের সামনে’, ‘এই আমি সিনেমা দেখতে ঢুকছি’, ‘এখন আমি মহাকাশে’র সগর্ব ঘোষণা...

তবে শুধু নিজের ছবি নয়। বন্ধুরা মিলেও সেলফি তোলা যায়। যাকে বলে গ্রুপ সেলফি। নেলসন ম্যান্ডেলার স্মরণসভায় গিয়ে বারাক ওবামা, ডেভিড ক্যামেরন আর হেলি থরনিং-স্মিড যেমন তুলেছিলেন। কিংবা ধরুন, এ বছরের অস্কারে তোলা এলেন ডিজেনর্স-ব্র্যাডলি কুপারের সেলফি।



তবে শুধু হলিউডি তারকাই নন, টলিউডও সেলফিতে কম যান না। এই তো গত সোমবার আনন্দplus-এ প্রকাশিত হয়েছিল শ্রাবন্তী, দেব, সায়ন্তিকার ‘টিম বিন্দাস’ সেলফি। মিমি চক্রবর্তীও কম যান না সেলফি পোস্ট করতে। সে কথা বলাতে মিমি হাসতে হাসতে বললেন, “আমি তো প্রতিদিন একটা করে সেলফি তুলবই। অন্যের উপর ভরসা করতে হয় না। সেটা বেশ সুবিধার। নিজেই বেশ কয়েকটা ছবি তুলে তার মধ্যে থেকে সেরাটা বেছে নিয়ে আপলোড করলেই হল।” আর তাঁর মতো সেলফি এক্সপার্ট হওয়ার কোনও টিপস্‌? “প্রথমে আয়নায় দেখে নিন নিজের কোন প্রোফাইলটা ভাল। নিজের মুখের অ্যাঙ্গেলটা বোঝা দরকার। কোন দিক থেকে ছবি তুললে ভাল লাগে, সেটা বুঝতে পারলেই কেল্লাফতে। আর ইন্সটাগ্রামে ফাইনাল টাচটা মাস্ট,” বললেন মিমি।

বারবার প্র্যাকটিস করতে থাকলে সেলফি-এক্সপার্ট হতে বেশি সময় লাগবে না। আর অ্যাপসও তো আছে সাহায্য করতে। ক্যামমি, সেলফি.আইঅ্যাম, ফেসটিউন, এভরিডে। এগুলো ছাড়া ইন্সট্যাগ্রাম, স্ন্যাপচ্যাট-এর মতো ফোটোশেয়ারিং অ্যাপস তো আছেই। তবে সেলফি তোলার সময় সাবধান থাকবেন ফোটোবম্ব হওয়ার থেকে। মানে এমন কিছু যাতে আচমকা আপনার সেলফিতে না এসে পড়ে।

Advertisement