Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

রাজনীতির সঙ্গীত

গীতিকার: অটলবিহারী বাজপেয়ী। সুরকার-গায়ক: বাপ্পি লাহিড়ী। অ্যালবাম প্রকাশ করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। লিখছেন কৃশানু ভট্টাচার্যবলিউডে জী

১৮ জুন ২০১৪ ০০:৩৮
Save
Something isn't right! Please refresh.
ছবি: সুব্রত কুমার মণ্ডল

ছবি: সুব্রত কুমার মণ্ডল

Popup Close

বলিউডে জীবনের প্রথম ছবিতে সুর দিয়েই শ্রোতাদের মনে তুফান তুলেছিলেন এই রাজ্যের ভূমিপুত্র বাপ্পি লাহিড়ী। আজও কান পাতলেই শোনা যায় এফএমএ বাজছে, ‘চলতে চলতে মেরে ইয়ে গীত ইয়াদ রাখ না, কভি আলবিদা না কহেনা’। তাঁর সঙ্গীতজীবনে এমন মরমি সুর অনেক বার সৃষ্টি করেছেন সফল এই বাঙালি সুরকার।

লোকসভা নির্বাচনে শ্রীরামপুর কেন্দ্র থেকে হেরেও দমে যাননি বাপ্পি। বিজেপি-র ঐতিহাসিক সাফল্যকে স্মরণীয় করে রাখার জন্য তিনি ছটফট করছিলেন। ‘বিজেপি-র এই জয়কে স্মরণীয় করে রাখার জন্য একটা কিছু করার তাগিদ অনুভব করছিলাম ভিতর থেকেই। হাজার হোক বলিউডে তো আমিই ‘সিনিয়রমোস্ট মিউজিশিয়ান।”

গোটা পরিকল্পনায় তিনি দিতে চলেছেন অভিনব এক চমক। পদ্মফুলের সমর্থকদের মনে তুফান তুলতে বাপ্পি লাহিড়ীর পরবর্তী অ্যালবামের গীতিকার ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ী।

Advertisement

“সব শুনেটুনে তারিফ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। প্রশংসা করেছেন লালকৃষ্ণ আডবাণীও,” এমন কাণ্ড ঘটিয়েও নির্বিকার বাপ্পি।

দিল্লিতে মোদী সরকারের শপথ নেওয়ার পর দিনই অসুস্থ অটলবিহারী বাজপেয়ীকে দেখতে সটান তাঁর বাড়ি চলে যান পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ। “বহু দিন ধরে আমারও ইচ্ছা ছিল অটলবিহারীজির সঙ্গে দেখা করার। সেই দিনই অটলজির জামাই রঞ্জন ভট্টাচার্যকে অনুরোধ করে আমিও চলে গেলাম তাঁর বাড়ি।” অটলজির শোবার ঘরে ঢুকেই প্রবাদপ্রতিম মানুষটিকে প্রণাম করলেন বাপ্পি। চলে আসার সময়ে অটলজির মেয়ে নমিতা ও জামাই রঞ্জন তাঁর হাতে তুলে দিলেন বাজপেয়ীজির সারা জীবনের লেখা কবিতা সংকলন ‘মেরি এক্কানবে কবিতায়েঁ’।

ওই সংকলনের চারটি কবিতা বাপ্পি লাহিড়ী বেছে নিয়েছেন তাঁর নতুন অ্যালবামের জন্য। কোন চারটি? “বাজপেয়ীজির কবিতায় ঘুরেফিরে জায়গা করে নিয়েছে মানবিক মূল্যবোধ এবং দেশমাতৃকা,” তথ্য দিলেন সুরকার।

দু’টি কবিতা তাঁর দারুণ পছন্দ হয়েছে। ‘বিশ্বশান্তি কে হম সাধক হ্যায়’ এবং ‘ভারত জমিন কা টুকড়া নহি, জিতা জাগতা রাষ্ট্রপুরুষ হ্যায়। হম জিয়েঙ্গে তো ইসকে লিয়ে মরেঙ্গে তো ইসকে লিয়ে’। “অপূর্ব, অপূর্ব!” হইহই করে উঠলেন তিনি। এই গান দু’টি-সহ বাজপেয়ীজির মোট চারটি কবিতায় সুর দেওয়া হয়ে গিয়েছে। চারটি গানের সুরে সুরে ভাবুক হয়ে গিয়েছিলেন মোাদীজি,” সৃষ্টিসুখের উল্লাসে বাপ্পিদা হাসছেন। আর আডবাণীজি? “উনি তো আবেগপ্রবণ মানুষ। মুগ্ধতা ফুটে উঠেছিল ওঁর চোখেমুখে।”

অ্যালবামে থাকবে মোট আটটি গান। বাকি গানের একটি নরেন্দ্র মোদীর গর্ভধারিণীকে নিয়ে। “মোদীজি দেশের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার পরে যখন বাড়ি ফিরলেন, সেই সময় মোদীজির মা নিজের হাতে তাঁর সন্তানকে মিষ্টিমুখ করিয়ে দেওয়ার সেই দৃশ্য টেলিভিশনের দৌলতে প্রত্যক্ষ করেছে গোটা দেশ। মা-র সঙ্গে সন্তানের নাড়ির যোগ আরও একবার প্রমাণিত হয়েছিল গোটা বিশ্বের কাছে।”



সেই দৃশ্য ভোলেন কী করে বাপ্পি? এই মা-কে নিয়েই গানের লাইন। ‘মা তো মা হি হ্যায়। মা কা কর্জ চুকেগা কহাঁ?’ গীতিকার দীপক। সুরকারের দাবি, “মা-কে নিয়ে এমন গান তো ইউনিভার্সাল সং, এই গান শুনলে প্রত্যেকের মনে পড়বে নিজের মা-কে!” এমনই মরমিয়া সুর করেছেন তিনি? “মা তো আমাদের কাছে বড়ই ‘ইমোশনাল’! সুর করেছি অনেকটা ‘কভি আলবিদা না কহে না-র মতো করে।” হিন্দি অ্যালবামে ‘বিশ্বশান্তি’র ইংরেজি ‘ভার্সান’ও থাকবে। বিদেশে গিয়ে কোনও বিদেশি গায়ককে দিয়ে এই গান গাওয়ানোর পরিকল্পনা আছে বাপ্পির। “দেখা যাক।” থাকবে একটি কোরাস গানও।

দিল্লিতে ‘বিশ্বশান্তি’ অ্যালবাম প্রকাশ করতে রাজি মোদী। গ্র্যামি পুরস্কার পাওয়া বিশ্বমোহন ভট্টও আছেন এই প্রজেক্টে। “কোন মিউজিক কোম্পানিকে দিয়ে কাজটা করাব, তা এখনও ঠিক করিনি,” জানালেন বাপ্পি। এই মুহূর্তে বলিউডে কুণাল কোহলি-অনুরাগ কশ্যপের মতো পরিচালক-সহ তাঁর হাতে প্রায় দশ-এগারোটা ছবি। ‘গুন্ডে’ ছবির ‘তুমনে মারি এন্ট্রি...’ দেশে তোলপাড় তুলেছে, তাঁর দাবি। “গত ৩৮ বছর বলিউডে আছি গায়ক-সুরকার হিসেবে। আজকের প্রজন্মের পছন্দের সুর করার চেষ্টা করি। ‘সত্য সাঁইবাবা’র টাইটেল সংও গেয়েছি।” নতুন করে সুর করেছেন ‘আই অ্যাম আ ডিস্কো ডান্সার’ গানের।

বর্ষীয়ান এই সুরকারের মতে, ডিস্কো মঞ্চে গাওয়া হয় হিন্দি গান, পঞ্জাবি গান। “বাংলা গানকেও ডিস্কো মঞ্চে তুলে দিয়েছি। ‘ও সোনা ও সোনা ...তাড়াতাড়ি এসে যাও’ এখন সর্বত্র শোনা যাচ্ছে। ”

প্রসঙ্গ তোলেন প্রয়াত মাইকেল জ্যাকসনের। মোহিত হয়ে গিয়েছিলেন মাইকেল ‘ডিস্কো ডান্সার’এর ‘জিমি জিমি আ জা’ শুনে। বলেছিলেন, ‘আই লভ ইয়োর সং’। আইফা অ্যাওয়ার্ড -এ প্রিয়ঙ্কা চোপড়ার সঙ্গে নাচলেন জন ট্রাভোল্টাও। “কী গানের সুরে? ‘আমার সোনা সোনা’ ও ‘তুনে মারি এন্ট্রি’র সঙ্গে।”

হিন্দিতে এখনও হিট গান দিয়ে যাচ্ছেন, দাবি তাঁর। “বাংলা ছবিতেও তাই। ‘উল্টে দেব পাল্টে দেব’ গান থেকে মিঠুনের ‘লে হালুয়া’ বা ‘খোকা ৪২০’-এর গান। সব, সব হিট।”

গান বেঁধেছেন বিশ্বকাপ উপলক্ষেও। ‘উই আর অল, ড্রিমস আর হাই, ফ্রি অ্যান্ড ফান দ্যাটস ফুটবল। সবে রিলিজ করেছে। সব চ্যানেলে শোনা যাবে এই গান।”

এর পরেও বলিউডের পক্ষে সম্ভব বাপ্পি লাহিড়ীকে ‘আলবিদা’ জানিয়ে দেওয়া?



Something isn't right! Please refresh.

Advertisement