×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

৩১ জুলাই ২০২১ ই-পেপার

তাপের শহরে তপ্ত ফ্যাশন

২২ মে ২০১৪ ১৬:৪৮

ডেনিম

“সামারে এ বার লাইট ডেনিমের ট্রেন্ড। ফ্যাশনওয়্যারে ডেনিমের ফর্ম নিয়ে চলছে নানান এক্সপেরিমেন্ট”- বলছেন স্টাইলিস্ট শুচিস্মিতা দাসগুপ্ত। একটা সময়ে ডেনিম মানেই ছিল মোটা কাপড় আর শীতের সময়ে আরামদায়ক ফ্যাব্রিক। কিন্তু এখন সময়ের সঙ্গে সঙ্গে বদলে গেছে ডেনিম। হালফিলের ফ্যাশনে এখন নরম সুতোর ডেনিমের কদর। ডেনিমের কাট নিয়েও চলছে নানা ভাবনাচিন্তা। কলকাতার প্যাচপেচে গরমের ফ্যাশনে হট অ্যান্ড হ্যাপেনিং লুক-এর জন্যে ডেনিমের জুড়ি মেলা ভার। লং প্যান্ট, শর্ট স্কার্ট, ফ্লোরাল লং ডেনিম ড্রেস, নিজের কমফর্ট অনুসারে বেছে নিতে হবে পছন্দের ডেনিম। বিশেষ করে হাল্কা নীলাভ ডেনিমের বিভিন্ন কাট-ই এ বার গরমের বাজার টানবে বলে জানাচ্ছেন শুচিস্মিতা।এ ক্ষেত্রে আজকের প্রজন্মের মন টেনেছে ব্লু ডেনিমের ছেঁড়া ফ্যাব্রিকের কাট। ছেঁড়া ডেনিমের শর্ট স্কার্টে, খোলা চুলের আশির দশকের গোল ফ্রেমের ডার্ক গ্লাসে, ফ্লুরসিন্ট ট্যাঙ্ক টপে, পায়ের ডেনিম স্নিকার্স-এ আজকের তরুণীরা জাগিয়ে তুলছে হট অ্যান্ড র্যা ভিশিং লুক। এই যৌবনাদের চলনেই যেন সেই গোপন শরীরের টান। মিক্স অ্যান্ড ম্যাচের ফ্যাশন দুনিয়ায় এই লাইট ডেনিম দিয়েই করে ফেলুন নানা কায়দা। থাকুন ট্রেন্ডি। শুচিস্মিতা বলছেন, “গ্রীষ্মের সকালে কুল অ্যান্ড রিফ্রেশিং লুকের জন্যে বেছে নিন স্কিন ফিট হাল্কা নীল ডেনিমের এম্বেলিশড লং প্যান্ট, সঙ্গে থাকুক লাইম গ্রিন ফুল শার্ট। মিনিমালিস্টিক হেয়ার ডু আর মেক-আপ এই গ্রীষ্মেও আপনাকে ঝরঝরে করে তুলবে।’’ ডেনিমের লং প্যান্ট-এর বাইরে গিয়ে সন্ধের কফির আড্ডায় সাহসী হতে হলে শুচিস্মিতা বলছেন শর্ট ডেনিম স্কার্ট পরতে। আর আপার বডিতে তিনি জড়িয়ে নিতে বলছেন ব্রাইট ফ্লোরাল প্রিন্টের ক্রপ টপ, পায়ের স্ট্র্যাপড স্টিলোটয় আপনি পেতে পারেন পারফেক্ট ইভিনিং লুক। এ তো গেল লাইট ডেনিমের লোয়ার কাট-এর কথা। ফর্মাল ইভিনিং পার্টির জন্যে পরতে পারেন ডেনিম ফ্লোরাল প্রিন্ট ড্রেস। নীল ডেনিমে একঘেয়ে লাগলে বাছতে পারেন হোয়াইট জিনস্। যে কোনও উজ্জ্বল রঙের কুর্তি বা শার্টের সঙ্গে তা সহজেই নজড় কাড়বে। প্রতিবাদের ভাষায়, উচ্ছ্বাসের বিশৃঙ্খলে বাঁধনছেঁড়া মানুষের পোশাকি রং ব্লু ডেনিম ছাড়া আর কিছুই হতে পারে না। ছাত্র আন্দোলন, ফ্লাওয়ার পাওয়ার, হিপি মুভমেন্ট দিয়েই এই ব্লু ডেনিমের পথ চলা।

Advertisement



হিট বাঁচতে হট সাদা

সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ফ্যাশন পাল্টায়, কিন্তু স্টাইল থেকে যায় রঙের আঙিনায়। গরমের এই চিরন্তন রং হল সাদা। সাদার মধ্যেই লুকিয়ে আছে তপ্ত দিনের স্নিগ্ধ সাজ। রোদজ্বলা দুপুর হোক আর রাত পার্টির নিশিযাপন চাঁদ রঙের নেশা শরীরে মেখে গরমকে এ বার বাই বাই বলাই যায়।

“তবে গরম তাড়াতে সাদা পরা মানে কেবলই আপাদমস্তক সাদায় নিজেকে ঢেকে দেওয়া নয়। সাদার মধ্যে রঙের আবির না লাগলে বুড়োটে শীতের মনখারাপ আপনাকে কিন্তু ঘিরে রাখবে। এক দিন যদি সলিড হোয়াইট পরেন, পরের দিন বাছুন সাদার উপরে স্ট্রাইপ, চেক বা প্রিন্ট। ফ্লোরাল থেকে অ্যানিম্যাল প্রিন্ট, সাদার উপর সবই ভাল দেখায়।’’ -সাবধান করছেন ডিজাইনার চন্দ্রাণী সিংহ ফ্লোরা।





চিকন, মলমল, লিনেন, শিফন, জর্জেট, খাদি হল গরমের ফ্যাব্রিক। সেই কথা মাথায় রেখে শুচিস্মিতা বলছেন সাদা চিকনের সালোয়ার কুর্তা পরে রোদ থেকে মাথা ঢাকতে রঙিন ব্যান্ডানা বা রামধনু রঙের ওড়না মাথায় জড়াতে। রোদও বাঁচল, আপনিও সাদার একঘেয়েমি কাটিয়ে রঙিন হলেন। সাদার ওপর সাদা চিকনের শাড়ি পরলে কলমকারি বা ভাইব্র্যান্ট রঙের খাদি ব্লাউজ দিয়ে টিম-আপ করুন। রঙের ব্যাকড্রপে সাদার আলো রোদ তাড়াবে। চন্দ্রাণী অবশ্য বলছেন অন্য কথা। তাঁর মতে, “সাদার সঙ্গে অন্য রঙের কম্বিনেশন মানেই যে প্রচণ্ড উজ্জ্বল কোনও রং বাছতে হবে, এমনটা তো নয়। গ্রে, বেজ, ব্রাউন, অ্যাশ-এর সঙ্গে সাদার ম্যাচিং অফিসে দিব্যি পরতেই পারেন, চোখেরও আরাম হবে। সাদা শার্টের সঙ্গে ফিকে নীল ডেনিমের ম্যাচিংটা তো সব যুগেই হিট। কলেজের মেয়েরা সাদা শার্ট, স্কার্ট, শর্টস বা ফুল লেন্থ ট্রাউজার্স পরতে পারেন। সঙ্গে থাক অন্য রঙের সিঙ্গল বা মাল্টিকালার টপ। কিংবা কুর্তি বা টপটা সাদা হলে রং থাক স্কার্ট, পালাজো, সালোয়ার বা প্যান্টে।”

ফ্যাশন ডিজাইনার অগ্নিমিত্রা পল বলছেন, ‘আসলে গ্লোবাল ওয়ার্মিং তো আমাদের দেশের আবহাওয়াটাই পাল্টে দিয়েছে। তাতে কলকাতার গরমটা ভীষণই প্যাচপেচে। গরমের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এই প্যান্ট খুব ইন। অনেকটা কাপড় নিয়ে বেশ ব্যাগি-কেয়ারলেস একটা লুক আসে। শর্ট টপ বা স্প্যাগির সঙ্গে হারেম প্যান্ট ক্যারি করতে পারলে কলেজ থেকে পার্টি ওয়্যার-সবেতেই হট। আমার কালেকশনে আমি ফ্লোরাল ডিজাইন বেশি রেখেছি। আর পার্পল, চেরি রেড, গ্রিন, অরেঞ্জ এই ধরনের ভাইব্র্যান্ট কালার গরমে ভীষণ কালারফুল লাগে। ইয়ং ছেলেমেয়ে সকলকেই খুব ফ্রেশ অ্যান্ড ব্রাইট লাগে।”

বরফ রঙের শাড়ি আর পিঠ খোলা ব্লাউজ একমাত্র গ্রীষ্মেই শীতের মেজাজ ফিরিয়ে আনতে পারে, সাদার এমনই ক্যারিশ্ম, জানিয়ে দিচ্ছেন অগ্নিমিত্রা পল। পুরো সাদা বা নিয়ন রঙের পাড় আঁচলে কন্ট্রাস্ট ব্লাউজ আর সিলভার জুয়েলারি একটা এলিগেন্ট লুক এনে দেবে বলে মনে করছেন অগ্নিমিত্রা। বিয়েবাড়ির কথা ভেবে সাদা টাঙ্গাইল কিংবা ঢাকাইয়ের সঙ্গে মাল্টিকালার কটন চেক প্রিন্টের ব্লাউজ আর জুঁই বা বেলফুলের মালার গন্ধ নেশায় বিয়েবাড়ির ভিড়ে সকলের চোখ আপনার দিকেই থাকবে- পরামর্শ দিচ্ছেন অগ্নিমিত্রা।

খোলা শরীরের উল্কি দহন

শাহরুখ খানের ‘অশোকা’ ছবিতে মৎস্যজীবী করিনা কপূরের খোলা শরীরে উল্কির হট বন্ধন তামাম ফ্যাশন দুনিয়াকে টলিয়ে দিয়েছিল। সেই থেকে দহন দিনের খোলা সাজে উল্কির রমরমা। গরমের আগুনরঙা কৃষ্ণচূড়া যদি আপনার হল্টার পিঠে আগুন খেলায়? আলাদা করে আর পোশাকের কথা আপনাকে ভাবতেই হবে না। আসল ট্যাটুর ঝক্কিও কিছু কম নয়। গরমের স্লিভলেস, হল্টার, পিঠ খোলা ড্রেসের সঙ্গে চমৎকার মানিয়ে যাচ্ছে নকল ট্যাটু বা উল্কি। নানা ধরনের ফুল, মোটিফ, পশুপাখির মুখ, জোডিয়াক সাইন বা বিমূর্ত যে কোনও নকশা এই প্লাস্টিক স্টিকার সহযোগে চটপট লেগে যাচ্ছে ক্যাপ্রির নীচের খোলা অংশে, স্লিভলেসের উদাসীন বাহুতে বা লো নেক কুর্তির ক্লিভেজের অন্দরে। সাউথ সিটি মলের সামনের স্টল বা গড়িয়াহাট-নিউমার্কেট জুড়ে ঢেলে বিকোচ্ছে এই বাহারি উল্কি। একরঙা থেকে বাহারি বা ছোট থেকে বড় এই কেতায় শরীর সাজাতে পকেটমানির ১৫০-৩৫০ অবধি খসবে মাত্র। অ্যাক্সেসরিজ ছাড়াই, পোশাক নিয়ে মাথা না ঘামিয়ে নিজের সাজে চমক আনতে আইপিএলের গরম হাওয়ায় জেন ওয়াই থেকে জেন এক্স ছক্কা মারছে উল্কি সাজের দুলকি চালে।



গরমে ওয়ার্ড্রোবে মাস্ট

• মাল্টিকালার ক্রপ টপ, ট্যাঙ্ক টপ, মোনো কালার মিডি স্কার্ট, ফ্লোরাল

• প্রিন্ট বা প্যাস্টেল শেডের জাম্প স্যুট, প্রিন্টেড হট প্যান্টস্, ডেনিম

• জিনস্, সাদা শার্ট, ফ্লোরাল ম্যাক্সি ড্রেস, সাদা জর্জেট শাড়ি, রঙিন

• নেটের শাড়ি, বেজ আর লাল রঙের হল্টার ব্লাউজ,
স্লিভলেস শর্ট কুর্তি, সাদা পাটিওয়ালা সালোয়ার

গরমে যা চলবে না

লেয়ারিং, ওভার মেক-আপ, এক্সট্রা শর্ট হট প্যান্টস্, মোজা, ফ্ল্যাট চটি, কালো আর ছাই রং।

Advertisement