Advertisement
০৯ ডিসেম্বর ২০২২

বন্ধুদের পুনর্মিলন, সমাজের ক্ষয়িষ্ণুতা

‘বালিঘর’ ছবিটিতে রয়েছেন আবির চট্টোপাধ্যায়, অনির্বাণ ভট্টাচার্য, রাহুল বন্দ্যোপাধ্যায়, পার্নো মিত্র। ওপার বাংলা থেকে নুসরত ইমরোজ তিশা, আরিফিন শুভ।

আবির চট্টোপাধ্যায়, পার্নো মিত্র, নুসরত ইমরোজ তিশা।

আবির চট্টোপাধ্যায়, পার্নো মিত্র, নুসরত ইমরোজ তিশা।

শেষ আপডেট: ২৩ জানুয়ারি ২০১৮ ০৮:০০
Share: Save:

অরিন্দম শীলের পরবর্তী ছবিতে দুই বাংলার একঝাঁক শিল্পী। ভারত-বাংলাদেশ যৌথ প্রযোজনায় সুচিত্রা ভট্টাচার্যের ‘ঢেউ আসে ঢেউ যায়’ নিয়ে অরিন্দমের ছবি ‘বালিঘর’।

Advertisement

পরিচালকের কথায়, ‘‘এত দিন যৌথ প্রযোজনার ছবিগুলোকে সম্মানের সঙ্গে দেখা হতো না। গৌতম ঘোষের ছবি ছাড়া বাকি সবই যৌথ প্রযোজনার নামে প্রহসন হয়েছে! আমরাই প্রথম সব রকম নিয়ম মেনে, অনুমতি নিয়ে ছবি করছি।’’ অরিন্দম এই উদ্যোগের কৃতিত্ব দিলেন আবুল খায়েরকে।

‘বালিঘর’ ছবিটিতে রয়েছেন আবির চট্টোপাধ্যায়, অনির্বাণ ভট্টাচার্য, রাহুল বন্দ্যোপাধ্যায়, পার্নো মিত্র। ওপার বাংলা থেকে কাজী নওশাবা আহমেদ, নুসরত ইমরোজ তিশা, আরিফিন শুভ। শিল্পীদের তালিকা দেখে বোঝা যাচ্ছে অভিনয়ের কাঠামো জোরদার করতে চান। জোর দিয়েছেন বিষয়েও। যে কারণে বাংলা সাহিত্যকে আশ্রয় করেছেন। ‘ঢেউ আসে ঢেউ যায়’-এ বন্ধুদের পুনর্মিলন আছে। যে বিষয় নিয়ে পরিচালক অনেক দিন ধরে ছবি করতে চাইছিলেন। ‘‘সুচিত্রাদির গল্পে বন্ধুদের সমাজের ক্ষয়িষ্ণুতা ধরা পড়ছে। তার সঙ্গে বন্ধুত্বের সংমিশ্রণ আছে। অনেকগুলো পরত একসঙ্গে মিশেছে,’’ গল্প বাছাইয়ের ব্যাখ্যায় বললেন অরিন্দম।

দুই বাংলার নানা জায়গা জুড়ে শ্যুটিং হবে। কলকাতা, শান্তিনিকেতন, ঢাকা, কক্সবাজার, চিটাগং। মিউজিকও করবেন দু’পারের শিল্পীরা— বিক্রম ঘোষ এবং বাংলাদেশের ব্যান্ড চিরকুট। মার্চ মাস থেকে শ্যুটিং শুরু করবেন, জানালেন অরিন্দম।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.