×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৪ জুন ২০২১ ই-পেপার

অমিতাভের জন্মদিনে কী প্ল্যান করল কলকাতার ফ্যানেরা

রাইমা চক্রবর্তী
০৯ অক্টোবর ২০১৭ ১৭:৩৪
এ ভাবেই রোজ পুজো হয় ‘ঈশ্বর’ অমিতাভের। ছবি: সঞ্জয় পতোদিয়ার সৌজন্যে।

এ ভাবেই রোজ পুজো হয় ‘ঈশ্বর’ অমিতাভের। ছবি: সঞ্জয় পতোদিয়ার সৌজন্যে।

একেই বোধ হয় বলে ‘জাবরা ফ্যান’!

পাঁচ বছর আগে ছোট্ট অগস্তর স্কুল থেকে তার বাবাকে ডেকে পাঠানো হয়েছিল। কেন জানেন? কারণ ওই শিশু নাকি ক্লাসে ‘অদ্ভুত’ আচরণ করে। কী ‘অদ্ভুত’ আচরণ?

ঘুরে ফিরে বন্ধুদের সঙ্গে অমিতাভ বচ্চনের গল্প করে। হাবেভাবেও নাকি শাহেনশার স্টাইল! স্কুলে গিয়ে শিক্ষকদের এমন অভিযোগ শুনে শুধুই হেসেছিলেন অগস্তর বাবা সঞ্জয় পতোদিয়া। হাসবেন না-ই বা কেন! নিজের বাড়ির গ্যারাজকে মন্দির বানিয়ে, সেই মন্দিরের বিগ্রহ করেছেন যাঁকে, সেই ‘ঈশ্বর’কেই যে নকল করছে তাঁর ছেলে!

Advertisement

না, এখানেই শেষ নয়।

১৬ বছর ধরে সেই ‘ঈশ্বর’কে পুজো করে চলেছেন পতোদিয়া পরিবার এবং তাঁদের ক্লাবের সদস্যরা। পুরোটাই ‘শাহেনশা’ স্টাইলে। তাঁদের বক্তব্য, তাঁরা অমিতাভ বচ্চনের জীবনদর্শনে বিশ্বাসী। বিগ বি’র শুধুমাত্র অনুরাগী তাঁরা একেবারেই নয়, তাঁরা আসলে তাঁদের ‘ঈশ্বর’ অমিতাভের ভক্ত।

আরও পড়ুন, সলমনের বকা খেয়ে হাসপাতালে বিগ বস ১১-র প্রতিযোগী জুবের খান

তাঁদের কাছে দুর্গাপুজো, দীপাবলি, ইদ, বড়দিন— সবই ‘অমিতাভ জন্মজয়ন্তী’। অল বেঙ্গল অমিতাভ বচ্চন ফ্যানস অ্যাসোসিয়েশন (এবিএফএ)-এর সম্পাদক সঞ্জয় পতোদিয়া জানিয়েছেন, ১১ অক্টোবর তাঁদের জীবনের বিশেষ দিন। তাঁদের এই সংস্থা তৈরির উদ্দেশ্য, বিশ্বের সব অমিতাভ বচ্চন ভক্তদের এক ছাতার তলায় নিয়ে এসে তাঁদের প্রিয় নায়কের জীবনকে উদ্‌যাপন করা। এর পাশাপাশি সমাজসেবামূলক কাজও করেন তাঁরা। সমাজের পিছিয়ে পড়া ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য সারা বছর ধরেই বিভিন্ন অনুষ্ঠান করেন তাঁরা।



অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে অল বেঙ্গল অমিতাভ বচ্চন ফ্যানস অ্যাসোসিয়েশন (এবিএফএ)-এর সদস্যরা। ছবি: সঞ্জয় পতোদিয়ার সৌজন্যে।

প্রতি বছরই অমিতাভের জন্মদিনে মুম্বই পাড়ি দেন ক্লাবের সদস্যরা। দেখা করেন অমিতাভের সঙ্গে। তবে এ বছর তাঁরা এখানেই সেলিব্রেট করছেন। মন্দিরে ‘অমিতাভ শ্লোক’ পড়ে বিশেষ প্রার্থনা করা হবে বুধবার। শ্লোকের লাইনগুলি অনেকটা, ‘‘হে হরিবংশ জ্ঞান গুণ সাগর/ আপ সে হুয়ে এক অবতার উজাগর/ হরিপুত্র অতুলিত বলধামা/ তেজিপুত্র অমিতাভ হ্যায় নামা...’’

আরও পড়ুন, সলমনের বিরুদ্ধে মামলা করলেন বিগ বস ১১-র প্রতিযোগী জুবের খান

‘অমিতাভ চালিসা’র একটি ছাপানো বইও রয়েছে তাঁদের। তবে কোনও প্রসাদ বা ধূপ-মোম জ্বালিয়ে পুজো নয়। প্রতিদিনই ক্লাবের সদস্যরা ঘণ্টা বাজিয়ে দু’বেলা করে আরতি করেন মন্দিরে। এই মন্দিরের সঙ্গেই যত্ন করে সংগ্রহ করা হয়েছে অমিতাভের ব্যবহার করা বিভিন্ন জিনিসও। রয়েছে অমিতাভের ব্লেজার, সানগ্লাস, ছবির কোলাজ।

ফ্যানক্লাবের সভাপতি সঞ্জয় পতোদিয়ার মন্তব্য, ‘‘বন্ডেল গেটের কাছে অবস্থিত এই মন্দিরের কথা কলকাতার অনেকেই জানেন না। ছেলেদের বন্ধুরা মাঝে মাঝে আসে। বাকিরা হয়তো পাগল ভাবে আমাদের!’’

অমিতাভ বচ্চন কি জানেন, তাঁর জন্য দক্ষিণ কলকাতার এক ছোট্ট গলিতে এমন কাণ্ড ঘটিয়েছেন তাঁর ফ্যানেরা? সঞ্জয়বাবুর বক্তব্য, ‘‘অমিতাভজি কোনও দিন আসেননি এখানে। তবে এখানকার ভিডিও দেখেছেন। আর তা ছাড়া ‘ঈশ্বর’ তো সর্বত্রই বিরাজমান। তিনি না হয় না-ই বা এলেন!”

১১ অক্টোবর, বুধবার বিগ বি’র ৭৫ বছরের জন্মদিন। সে দিনও বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছেন এবিএবিএফ-এর সদস্যরা। সঞ্জয় জানিয়েছেন, মন্দিরের কাছেই একটি খোলা জায়গায় শিশুরা এ দিন বসে আঁকো প্রতিযোগিতায় অংশ নেবে। প্রতিযোগিতার থিম অবশ্যই অমিতাভ বচ্চন। পাশাপাশি একটি এনজিওর মাধ্যমে শিশুদের বস্ত্র বিতরণের কাজও করবেন তাঁরা। অমিতাভ বচ্চন নিজেও নাকি মুম্বইয়ে সেদিন তাঁর বস্ত্র বিতরণ করবেন ওই এনজিওকে।

Advertisement