মহেশ ভট্টর লেখা ‘হমারি অধুরি কহানি’ এ বার মঞ্চে প্রদর্শিত হবে। মহেশ ভট্টের অন্য দুটি ছবি ‘ড্যাডি’ ও ‘অর্থ’ সিলভার স্ক্রিনে মুক্তি পাওয়ার অনেক পরে মঞ্চস্থ হয়। কিন্তু এ ছবির ক্ষেত্রে তেমনটি হল না। ছবিটি মুক্তি পেয়েছে এখনও এক মাসও হয়নি, এর মধ্যেই তার মঞ্চ উপস্থাপনার তোড়জোড় শুরু হয়ে গিয়েছে। মঞ্চে পরিচালকের ভূমিকায় থাকবেন এনএসডি-র স্নাতক ও পুরস্কার বিজয়ী পরিচালক-অভিনেতা হ্যাপি রণজিত্। ছবিতে মুখ্য চরিত্রে ছিলেন ইমরান হাশমি ও বিদ্যা বালন। মঞ্চে মুখ্য চরিত্রে দেখা যাবে অন্য এক ইমরানকে। তিনি ইমরান জাহিদ। এর আগে ভট্ট ক্যাম্পের মঞ্চ পরিবেশনা— যেমন ‘ড্যাডি’ ও ‘অর্থ’-এ ইমরান জাহিদকে দেখা গিয়েছে। বিদ্যার চরিত্রের জন্য এখনও অভিনেত্রীর খোঁজ চলছে বলে জানিয়েছেন পরিচালক হ্যাপি রণজিত্। অগস্টে প্রিমিয়র শো মঞ্চস্থ হবে দিল্লিতে। পরবর্তীকালে লাহৌর ও করাচিতেও শো হবে বলে জানিয়েছেন হ্যাপি। মঞ্চ সঙ্গীতের ভার নিয়েছে পাকিস্থানের বিখ্যাত সুফি রক-ব্যান্ড ‘রায়েত্’।

প্রসঙ্গত, মহেশ ভট্ট ও সুহৃতা সেনগুপ্তের লেখা ‘হামারি আধুরি কহানি’ নামের গল্পের বই এ বছরের শুরুতেই হাতে পেয়েছেন পাঠকরা। সে দিক থেকে ‘হামারি আধুরি কহানি’ এমনই এক উদাহরণ যা একই বছরে বই, সিনেমা ও মঞ্চে দেখা যাবে— এই প্রথমবার।