• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

নস্টালজিয়ার রাস্তা ধরে ‘চাড্ডি পহনকে’ ফিরে আসছে মোগলি

jungle book

এ দেশের মধ্যবিত্ত পরিবারগুলিতে ৯০-এর দশকে যারা বড় হয়েছে তাদের কাছে রোববার মানেই ‘জঙ্গল জঙ্গল পাতা চালা হে...। রুডওয়ার্ড কিপলিং-এর কাল্ট উপন্যাস ‘জঙ্গল বুক’ ছোট পর্দায় ধরা দেওয়ার পর থেকেই হয়ে উঠেছিল একটা গোটা জেনেরেশনের শৈশবের সঙ্গী। এখনও, যাদের বয়স ওই ২৫ থেকে ৩৫-এর মধ্যে তাদের নস্টালজিয়ায় প্রতিদিন আড় ভাঙে মোগলি, বাগিরা, কা, ভালু, শের খানরা। এখনও কিছু অবুঝ কিন্তু ভীষণ রঙিন স্বপ্নে তাদের অবাধ আনাগোনা। যাদের কথা মনে পড়লেই ভীষণ মন খারাপের একটা দিন ম্যাজিকের মত ঝলমলে।  সেই নস্টালজিয়াল মিষ্টি নষ্ট লজিককে আরও একবার টাটকা করতে পর্দায় ফিরছে সপার্ষদ মোগলি। সৌজন্যে ডিজনি। তবে এখানেই শেষ হচ্ছে না ভাললাগার ইতিবৃত্তটা। শুধু ইংরেজিতেই না। জাঙ্গল বুক ফিরছে হিন্দিতে। সে তো কত ইংরেজি সিনেমাই হিন্দি-সহ এক গুচ্ছ আঞ্চলিক ভাষাতে ডাব হয়ে পর্দায় ফিরে আসে। তা হলে মোগলির এই হিন্দি সংস্করণ নিয়ে এত হইচই কেন? আসলে এই মোগলি ফিরছে সেই পুরনো মোড়কে, পুরনো সেই সব ‘নিরুদ্দেশ সম্পর্কে ঘোষণা’ আবেগ গুলোকে উসকে দিয়ে। নতুন করে সেই এভার গ্রিন ‘চাড্ডি পহেন কে ফুল খিলা হে’ গানটি রিক্রেয়েট করেছেন দুই লেজেন্ড, গুলজার এবং বিশাল ভরদ্বাজ।

দেখুন গানের ভিডিও-

শের খানের গলায় সেই নানা পাটেকর। উপরি পাওনা, মস্ত অজগডর কা-এর হয়ে হিন্দিতে গলা দিচ্ছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। বুড়ো ভালুক বালুর জন্য ভয়েস ওভার দিয়েছেন ইরফান খান। মোগলির নেকড়ে মা রক্ষার গলায় শেফালি ছায়া। বাগিরার গলায় ওম পুরি। মোগলির ভূমিকায় আছে পুঁচকে ছেলে নীল শেঠি। ইংরেজিটিও অবশ্য ধারেভারে বেশ জোরদার। গলা দিয়েছেন বেংস কিংসলে, স্কারলেট জনসন, লুপ্তিয়া নিয়ানগো, বিল মারের মত হলিউডির হুজ, হুরা। হাতে মাত্র তিন দিন। আগামী ৮ এপ্রিল সদলবলে মোগলির পর্দা কাঁপানো শুরু হওয়ার আগে চলুন এক বার হয়ে যাক ডাউন দ্য মেমারি লেন, এই গ্যালারির হাত ধরে...

আরও পড়ুন-ভূত দেখবেন? আসুন…

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন