বন্যার জল নামার পরে জন্ডিসের প্রকোপ দেখা দিয়েছে কেশপুরের পূর্ব থাউরে। আক্রান্তের সংখ্যা অন্তত ১২ জন। আক্রান্তদের সকলে কেশপুর হাসপাতালে চিকিত্‌সাধীন। বুধবার এলাকায় যায় মেডিক্যাল টিম। জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক গিরীশচন্দ্র বেরা বলেন, “উদ্বেগের কিছু নেই। পরিস্থিতির উপরে সতর্ক নজর রাখা হয়েছে।” স্থানীয় সূত্রে খবর, কেশপুরের ওই এলাকার অন্তত ৫৬ জন অসুস্থ হয়। গিরীশচন্দ্রবাবু বলেন, “কেশপুরের যে এলাকায় বেশ কয়েকজন অসুস্থ হয়েছে, সেই এলাকা দিন কয়েক আগেও জলমগ্ন ছিল। ওখানে জল শোধনের কাজ শুরু হয়েছে।” এ দিন সকালে গিরীশচন্দ্রবাবুর নেতৃত্বে জেলা স্বাস্থ্য দফতরের এক প্রতিনিধি দল কেশপুরে যায়।