Advertisement
১০ ডিসেম্বর ২০২২

শ্রাবণ মাসে এই ভাবে শিবের ব্রত পালন করলে মনস্কামনা পূর্ণ হয়

শ্রাবণেই হয়েছিল দেবতা আর অসুরের সমুদ্রমন্থন। মন্থনে উঠে আসা বিষ নিজ কণ্ঠে ধারণ করে মহাদেব হয়েছিলেন নীলকণ্ঠ, বাঁচিয়েছিলেন সৃষ্টি। তাই শ্রাবণ মাস উৎসর্গীকৃত হয়েছে মহাদেবের উদ্দেশে।

পার্থপ্রতিম আচার্য
শেষ আপডেট: ১৯ জুলাই ২০১৯ ০০:০৫
Share: Save:

হিন্দুদের কাছে শ্রাবণ হল পবিত্র মাস। এই মাসে কিছু আচার পালন করলে মনষ্কামনা পূরণ হয়। শ্রাবণ মাস শিবের মাস। এই মাসের প্রতি সোমবার শিবের ব্রত পালন করেন বহু মানুষ। উদ্দেশ্য মনস্কামনা পূরণ। কাঁচা দুধ দিয়ে শিবলিঙ্গ কিংবা মূর্তি স্নান করাতে হয়।

Advertisement

শ্রাবণেই হয়েছিল দেবতা আর অসুরের সমুদ্রমন্থন। মন্থনে উঠে আসা বিষ নিজ কণ্ঠে ধারণ করে মহাদেব হয়েছিলেন নীলকণ্ঠ, বাঁচিয়েছিলেন সৃষ্টি। তাই শ্রাবণ মাস উৎসর্গীকৃত হয়েছে মহাদেবের উদ্দেশে।

আরও পড়ুন:বাস্তুশাস্ত্র অনুযায়ী তুলসী গাছের এই গুণগুলি সম্পর্কে জানতেন?

শ্রাবণ মাসে প্রতি দিন স্নানের পরে শিবস্তোত্র পাঠ অত্যন্ত জরুরি শিবভক্তদের কাছে। মহাদেব প্রসন্নও হন পাঠক বা ভক্তের প্রতি। অন্য মাসে রুদ্রাক্ষ ধারণের চেয়ে শ্রাবণে ধারণ করলে ফল অনেক বেশি ভাল হয়। শ্রাবণে অতি অবশ্যই শিবলিঙ্গে কিংবা মূর্তির মাথায় বেলপাতা দেওয়া আবশ্যক। এটা নিয়মের মধ্যেই পড়ে।

Advertisement

চতুর্থী, অষ্টমী, নবমী, অমাবস্যা, সংক্রান্তি আর প্রতি সোমবার মহাদেবের মাথা থেকে নামাতে নেই। শ্রাবণ মাসে স্ফটিক-শিবলিঙ্গ বসালে অত্যন্ত শুভ ফল দেবে। শ্রাবণ মাসের প্রতি সন্ধ্যায় শিবের আরতি করা অবশ্য কর্তব্য। বহু জায়গায় মঙ্গলগৌরীর পুজো হয়ে থাকে। শ্রাবণে মুরগি খাওয়া বারণ।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.