Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ জুন ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

মোদীকে বেগ দিতে সরলেন মোখতার

নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সংখ্যালঘু ভোটের ভাগাভাগি রুখতে বারাণসীতে প্রার্থী হলেন না স্থানীয় দোর্দণ্ডপ্রতাপ মুসলিম নেতা মোখতার আনসারি। ম

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি ১১ এপ্রিল ২০১৪ ০৩:৫২
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সংখ্যালঘু ভোটের ভাগাভাগি রুখতে বারাণসীতে প্রার্থী হলেন না স্থানীয় দোর্দণ্ডপ্রতাপ মুসলিম নেতা মোখতার আনসারি। মোখতার এখন জেলে বন্দি। তাঁর ভাই আফজল আনসারি আজ ঘোষণা করেন, “মুসলিমদের মধ্যে কোনও বিভ্রান্তি তৈরি করতে চাই না। এ বারের ভোটে অন্তত সংখ্যালঘু ভোট ভাগ হওয়া ঠিক হবে না। আর সে জন্যই মোখতার সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আফজল এও বলেন, “মোদীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সব ধর্মনিরপেক্ষ দল এখন একজোট হয়ে এক জন সর্বসম্মত প্রার্থী দেওয়া প্রয়োজন।”

বারাণসী থেকে ক’দিন আগেই সেখানকার স্থানীয় কংগ্রেস বিধায়ক অজয় রাইকে প্রার্থী করেছে। তার পরেই আজ মোখতারের তরফে এই ঘোষণা তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে। রাজনৈতিক শিবির এ ব্যাপারে এক মত যে, কংগ্রেসই মোখতারকে প্রার্থী না হতে রাজি করিয়েছে।

প্রশ্ন হল, এর পর কি বারাণসী থেকে সমাজবাদী পার্টি এবং বহুজন সমাজ পার্টিও তাঁদের প্রার্থী প্রত্যাহার করবে? কংগ্রেস সূত্র বলছে, সেই চেষ্টা অনেক আগেই শুরু হয়েছিল। এ ব্যাপারে সমাজবাদী পার্টি ও বহুজন সমাজ পার্টির নেতৃত্বের সঙ্গে তাঁরা এক প্রস্ত আলোচনাও করেছিলেন। কিন্তু সেই আলোচনা কিছুটা থমকেছে। কারণ, কংগ্রেসের মধ্যে দ্বিতীয় একটি সূত্র নিয়েও এখন আলোচনা চলছে।

Advertisement

কী সেই সূত্র? কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটির এক সদস্য আজ বলেন, “নরেন্দ্র মোদীর যে রাজনৈতিক উচ্চতা রয়েছে, কংগ্রেসের প্রার্থীর তা নেই। তাই মোদীকে যদি বেগ দিতে হয়, তাহলে ভোটের অঙ্কে সেই বেগ দিতে হবে। সেজন্য সর্বসম্মত প্রার্থী দেওয়া যেতে পারে। অথবা সপা-বসপা-র সঙ্গে সর্বসম্মত কৌশলেও লড়া যেতে পারে।”

কী ভাবে? তার ব্যাখ্যা করে কংগ্রেসের ওই শীর্ষ সারির নেতা আজ জানান, মোখতার আনসারি গত লোকসভা ভোটে বহুজন সমাজ পার্টির প্রার্থী ছিলেন। স্থানীয় সংখ্যালঘু মহলে তাঁর প্রভাব থাকায় মোখতার বিপুল ভোটও পেয়েছিলেন। মাত্র ১৭ হাজার ভোটে তিনি বিজেপি প্রার্থী মুরলীমনোহর জোশীর কাছে পরাস্ত হয়েছিলেন। এ বার বারাণসীতে আর কোনও সংখ্যালঘু প্রার্থী না থাকায় সাড়ে তিন লক্ষ মুসলিম ভোটের সিংহভাগ কংগ্রেস পাবে বলে আশা করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে মোখতারও কংগ্রেসকে সাহায্য করবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

বাকি রইল হিন্দু ভোট। কংগ্রেস নেতৃত্ব মনে করছেন, নরেন্দ্র মোদী বিজেপি প্রার্থী হওয়ায় স্বাভাবিক ভাবেই হিন্দু ভোটের সিংহভাগ তিনি পেতে পারেন। কিন্তু সমাজবাদী পার্টি কৈলাশ চৌরাসিয়া নামে এক জন ব্রাহ্মণকে প্রার্থী করেছে। আবার বহুজন সমাজ পার্টি বিজয়প্রকাশ জায়সবালকে প্রার্থী করেছে, যিনি জাতিগত ভাবে বৈশ্য। আম আদমি পার্টি নেতা অরবিন্দ কেজরীবালও এ বার বারাণসী থেকে প্রার্থী হয়েছেন। যুব সম্প্রদায় ও শিক্ষিত অংশের একটা ভোট আম আদমি পার্টি পেতে চাইছে। কংগ্রেসের প্রার্থী স্থানীয় বিধায়ক। অজয় রাইয়ের জাতীয় স্তরে কোনও পরিচিতি না থাকলেও এলাকায় ওজনদার ভূমিহার নেতা হিসেবে সকলেই তাঁকে চেনেন। ফলে মোদীর বিরুদ্ধে সর্বসম্মত প্রার্থী দেওয়ার তুলনায় এ ভাবে হিন্দু ভোটের ভাগাভাগির পরিবেশ তৈরি করে দেওয়া কম বুদ্ধির কাজ হবে না বলেই মনে করছেন কংগ্রেস নেতৃত্ব।

তবে বিজেপি নেতা মুখতার আব্বাস নকভি বলেন, “কংগ্রেসের এই সব অঙ্ক কোনও কাজে আসবে না। উত্তরপ্রদেশে এ বার উন্নয়নের প্রশ্নে ভোট হবে। মোদী স্থানীয় মানুষের বিপুল সমর্থন পাবেন।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement