Advertisement
৩০ নভেম্বর ২০২২
Inflation rate

এখনও প্রাক-অতিমারি পরিস্থিতিতে পৌঁছয়নি অর্থনীতি, মুদ্রাস্ফীতি নিয়ে আরবিআইকে এডিবি-র সতর্কবার্তা

কোভিড পরিস্থিতি বিবেচনা করে ২০২০ সালের মার্চে রেপো রেট ১১৫ বেসিস পয়েন্ট অর্থাৎ ১.১৫ শতাংশ কমিয়েও দেওয়া হয়েছিল।

মুদ্রাস্ফীতি নিয়ে সতর্কবার্তা এডিবি-র।

মুদ্রাস্ফীতি নিয়ে সতর্কবার্তা এডিবি-র। —প্রতীকী চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ ২২:৩৫
Share: Save:

আশানুরূপ গতিতে অর্থনীতি চাঙ্গা না হওয়ার অন্যতম কারণ মূল্যবৃদ্ধি। এ দিকে, ভারতের অর্থনৈতিক পরিস্থিতি এখনও প্রাক-করোনা পরিস্থিতিতে পৌঁছয়নি। এ নিয়ে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া (আরবিআই)-কে সতর্ক করল এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাঙ্ক (এডিবি)।

Advertisement

এডিবি-র নতুন রিপোর্ট বলছে, ক্রমবর্ধমান মুদ্রাস্ফীতি আগামী বছরেও আর্থিক বৃদ্ধির হার কমিয়ে দিতে পারে। তারা জানাচ্ছে, চলতি আর্থিক বছরে মুদ্রাস্ফীতি পৌঁছতে পারে ৬.৭ শতাংশে। আগের পূর্বাভাসে বলা হয়েছিল এই হার হতে পারে ৫.৮ শতাংশ। শুধু তাই নয়, বিশ্বে চাহিদার অভাবের কারণে আগামী দু’বছর ভারতের রফতানি ক্ষেত্র এবং অর্থনৈতিক বৃদ্ধিতে নেতিবাচক প্রভাব থাকতে পারে, পূর্বাভাস এডিবি-র। মুদ্রাস্ফীতির কথা ভেবে গত চার মাসে ১৪০ বেসিস পয়েন্ট (১.৪ শতাংশ) পলিসি রেট বাড়িয়েছে আরবিআই।

আগামী অর্থবছরের জন্যও মুদ্রাস্ফীতির পূর্বাভাস রয়েছে। এর পর পাঁচ থেকে ৫.৮ শতাংশের মধ্যে থাকবে। আগামী দু’বছর এই অবস্থা থাকতে পারে। মুদ্রাস্ফীতির কথা ভেবে গত চার মাসে ১৪০ বেসিস পয়েন্ট (১.৪ শতাংশ) পলিসি রেট বাড়িয়েছে আরবিআই।

আগামী অর্থবছরের জন্যও মুদ্রাস্ফীতির পূর্বাভাস রয়েছে। এর পর পাঁচ থেকে ৫.৮ শতাংশের মধ্যে থাকবে। আগামী দু’বছর এই অবস্থা থাকতে পারে।

Advertisement

কোভিড পরিস্থিতি বিবেচনা করে ২০২০ সালের মার্চে রেপো রেট ১১৫ বেসিস পয়েন্ট অর্থাৎ ১.১৫ শতাংশ কমিয়েও দেওয়া হয়েছিল। প্রায় ১১ মাস অপরিবর্তিত ছিল এই রেট। কিন্তু এ বার রিজার্ভ ব্যাঙ্কের আর্থিক নীতি সংক্রান্ত বৈঠকের পর রেপো রেট ০.৫০ শতাংশ বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নিয়েছে আরবিআই। এর ফলে নতুন রেপো রেট বেড়ে হয় ৫.৪০ শতাংশ।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.