Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৮ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

বি.কম পাশ নীতা অম্বানীকে বিএইচইউ-এর অতিথি অধ্যাপক হওয়ার প্রস্তাবে বিতর্ক

সংবাদ সংস্থা
বারাণসী ১৫ মার্চ ২০২১ ১৪:২২
নীতা অম্বানী।

নীতা অম্বানী।
—ফাইল চিত্র।

বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএইচইউ) অতিথি অধ্যাপক হিসেবে পড়ানোর ডাক পেলেন রিলায়্যান্স কর্ণধার মুকেশ অম্বানীর স্ত্রী নীতা অম্বানী। বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজ বিজ্ঞান শাখার তরফে গত ১২ মার্চ তাঁকে এই প্রস্তাব দেওয়া হয় বলে জানা গিয়েছে। তবে স্নাতক নীতা কোন যোগ্যতায় বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ানোর ডাক পেলেন, তা নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে। দেশের সবচেয়ে ধনী শিল্পপতির স্ত্রী বলেই নিয়ম বহির্ভূত ভাবে তাঁকে অধ্যাপনার সুযোগ দেওয়া হচ্ছে কি না, প্রশ্ন তুলেছেন নেটাগরিকরা।

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, মূলত মানবী বিদ্যাচর্চা (উইমেন স্টাডিজ)-র পাঠ দেবেন নীতা, যার আওতায় মহিলাদের জীবনধারনের মানোন্নয়নকে গুরুত্ব দেওয়া হবে। একটি সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, মৌখিক ভাবে তাঁদের প্রস্তাবে সায় দিয়েছেন নীতা। তবে লিখিত সম্মতিপত্র আসতে এখনও বাকি। সেটা হাতে পেলেই তাঁর লেকচারের জন্য আলাদা ভাবে রুটিন তৈরি করা হবে। নীতাকে সমাজ বিজ্ঞান বিভাগে পেলে বেনারস-সহ পূর্বাঞ্চলের মহিলাদের জীবনযাত্রার মানোন্নয়ন ঘটবে বলে আশাবাদী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

মুম্বই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাণিজ্যশাখায় স্নাতক নীতা। ভারতনাট্যমেও পারদর্শী। ২০১৪ সালে রিলায়্যান্স ইন্ডাস্ট্রির এগ্‌জিকিউটিভ ডিরেক্টর নিযুক্ত হন তিনি। ২০১০ থেকে অলাভজক সংস্থা রিলায়্যান্স ফাউন্ডেশনের সঙ্গেও যুক্ত। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনার জন্য যে শিক্ষার প্রয়োজন, এ সব কি তার বিকল্প হতে পারে? এই প্রশ্নই এখন ঘুরে বেড়াচ্ছে নেটমাধ্যমে।

Advertisement


বিষয়টি চাউর হতেই টুইটারে বিএইচইউ-এর সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন নেটাগরিকরা। কেউ লেখেন, ‘অতিথি অধ্যাপক হিসেবে মানবী বিদ্যাচর্চা নিয়ে নাকি লেকচার দেবেন নীতী অম্বানী। শুধু বি.কম পাশ উনি। অন্তত নেটমাধ্যমে তেমনই তথ্য রয়েছে। তাতেই যদি কলেজে পড়ানো যায়, সে ক্ষেত্রে কমপক্ষে আমিটি বা সারদায় তো আমিও পড়াতে পারি’!

নেটাগরিকদের মধ্যে কেউ কেউ আবার লেখেন, ‘বিএইচইউ-তে অতিথি অধ্যাপক হচ্ছেন নীতা। অম্বানী হলেই এখন এই দেশের মালিক হওয়া যায়’। সামাজিক ক্ষেত্রে নীতা অম্বানীর কী এমন যোগদান, যার জন্য তাঁকে বিএইচইউ-এর মতো প্রতিষ্ঠানে অধ্যাপনার সুযোগ দেওয়া হচ্ছে, তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। তবে এ ব্যাপারে রিলায়্যান্সের তরফে কোনও বক্তব্য পাওয়া হয়নি। যদিও বিএইচইউ-এর সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক কৌশল কিশোরের যুক্তি, ‘‘ব্যবসার ক্ষেত্রে নীতার যা অভিজ্ঞতা, তা মহিলাদের এগিয়ে যেতে সাহায্য করবে।’’

আরও পড়ুন

Advertisement