Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

I-Pac: ত্রিপুরায় আইপ্যাক কর্মীদের আটকে রাখার প্রতিবাদ মানিক সরকারের

ত্রিপুরার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “হোটেলে বন্দি করে রাখা হয়েছে সোমবার থেকে। এতো জঙ্গলের শাসনকে ছাপিয়ে চলে গিয়েছে। কখনও এমন রাজত্ব দেখ

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৮ জুলাই ২০২১ ১৪:১৬
মানিক সরকার।

মানিক সরকার।
—ফাইল চিত্র।

আগরতলায় আইপ্যাকের প্রতিনিধিদের পুলিশি হেনস্থার প্রতিবাদ করলেন ত্রিপুরার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এবং সিপিএম পলিটব্যুরো সদস্য মানিক সরকার। তাঁর অভিযোগ, জঙ্গলের শাসনকে ছাপিয়ে চলে গিয়েছে আজকের ত্রিপুরা। মঙ্গলবার আগরতলার মেলার মাঠ এলাকায় সিপিএম কার্যালয়ে সাংবাদিক বৈঠক করেন মানিক। সেখানেই বলেন, “পত্রিকায় দেখে জানালাম একটা সংস্থা সমীক্ষা করতে এসেছে। তারা আসতেই পারে, এটা তাদের গণতান্ত্রিক অধিকার। তাই বলে তাদের সদস্যদের হোটেলে বন্দি করে রাখতে হবে?” তাঁর মতে, ভয় পেয়েই এ সব করছে বিপ্লব দেবের সরকার। “এ সব কেন করছে? আসলে বিজেপি-র সরকার ভয় পেয়েছে। ভয়ভীতি থেকেই এই ঘটনা ঘটানো হয়েছে। সরকারের এই ভয়ভীতির কারণেই তাদের পাশ থেকে জনগণ সরে গিয়েছে”— বললেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী।

মানিক বলেন, “শুনেছি এরা পশ্চিমবাংলাতেও কাজ করেছে। এখানেও এসে সমীক্ষার কাজ করতে চাইছে। মানুষের সঙ্গে মিলিত হতে চাইছে। তাদের হোটেলে বন্দি রাখা হয়েছে সোমবার থেকে। এক দিনও কাজ করতে পারল না। এতো জঙ্গলের শাসনকে ছাপিয়ে চলে গিয়েছে। কখনও এমন রাজত্ব দেখেনি ত্রিপুরা”

Advertisement

মানিকের এই প্রতিবাদ উত্‌সাহ জুগিয়েছে ত্রিপুরার তৃণমূল নেতৃত্বকে। শুধু তাই নয়, সিপিএম পলিটব্যুরো নেতার এই বক্তব্যে, আগামী দিনের জাতীয় রাজনীতিতে সিপিএম-তৃণমূল সম্পর্কের নতুন সমীকরণেরও আভাস পাচ্ছেন অনেকে। দিন কয়েক আগেই পূর্ব মেদিনীপুরের এক অনুষ্ঠানে সিপিএম পলিটব্যুরো সদস্য তথা বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু বলেন, বিজেপি-কে রুখতে জাতীয় স্তরে সব দলের সঙ্গে হাত মেলাতে তাঁরা তৈরি। কিছু দিন আগে একই কথা শোনা গিয়েছে সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরির মুখেও।

আরও পড়ুন

Advertisement