Advertisement
০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
National News

অরুণাচলের ৬ এলাকার নতুন নামকরণ করে প্ররোচনার রাস্তায় চিন

অরুণাচল প্রদেশ নিয়ে ভারতের সঙ্গে সঙ্ঘাত আরও বাড়িয়ে তুলল চিন। উত্তর-পূর্ব ভারতের রাজ্যটিকে ফের ‘দক্ষিণ তিব্বত’ আখ্যা দিয়েছে বেজিং। চিনের সিভিল অ্যাফেয়ার্স মন্ত্রক অরুণাচল প্রদেশের ছ’টি অঞ্চলের নতুন নামকরণ করেছে।

ভারতকে প্ররোচনা দেওয়ার রাস্তা নিল চিন। —ফাইল চিত্র।

ভারতকে প্ররোচনা দেওয়ার রাস্তা নিল চিন। —ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
শেষ আপডেট: ১৯ এপ্রিল ২০১৭ ১৫:২০
Share: Save:

অরুণাচল প্রদেশ নিয়ে ভারতের সঙ্গে সঙ্ঘাত আরও বাড়িয়ে তুলল চিন। উত্তর-পূর্ব ভারতের রাজ্যটিকে ফের ‘দক্ষিণ তিব্বত’ আখ্যা দিয়েছে বেজিং। চিনের সিভিল অ্যাফেয়ার্স মন্ত্রক অরুণাচল প্রদেশের ছ’টি অঞ্চলের নতুন নামকরণ করেছে। ১৪ এপ্রিল এই নতুন নামগুলি ঘোষিত হয়েছে বলে চিনের শাসক নিয়ন্ত্রিত সংবাদপত্র গ্লোবাল টাইমস জানিয়েছে।

Advertisement

দলাই লামার অরুণাচল সফর নিয়ে ঘোর আপত্তি জানিয়েছিল চিন। তিব্বতি ধর্মগুরুকে ‘বিপজ্জনক’ এবং ‘চক্রান্তকারী’ আখ্যা দিয়ে বেজিং হুঁশিয়ারি দিয়েছিল, দলাই লামাকে ভারত অরুণাচলে যেতে দিলে ফল খারাপ হবে। চাপের কাছে অবশ্য ভারত মাথা নত করেনি। বেজিং-এর এই হুঁশিয়ারিকে ‘অনধিকার চর্চা’ আখ্যা দিয়েছিল নয়াদিল্লি। নির্ধারিত সূচি অনুযায়ীই অরুণাচল সফরে যান দলাই লামা। তার পরই চিনা বিদেশ মন্ত্রক অত্যন্ত কড়া বিবৃতি দিয়ে জানায়, চিন-ভারত দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের মারাত্মক ক্ষতি করে দিয়েছে নয়াদিল্লি। ভারতের বিরুদ্ধে চিন পদক্ষেপ করবে বলেও বেজিং হুমকি দেয়। সেই পথে হাঁটা যে শুরু হয়ে গেল, তা চিনের এই সাম্প্রতিকতম পদক্ষেপ থেকে স্পষ্ট।

অরুণাচলে দলাই লামার বিভিন্ন কর্মসূচিতে বিপুল জনসমাবেশ হয়েছে সম্প্রতি। —ফাইল চিত্র।

গ্লোবাল টাইমসে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে বুধবার জানানো হয়েছে, চিনের সিভিল অ্যাফেয়ার্স মন্ত্রক ১৪ এপ্রিল ‘দক্ষিণ তিব্বতে’র ছ’টি অঞ্চলের নতুন চিনা নামকে স্বীকৃতি দিয়েছে। চিনা ভাষার নামগুলিকে তিব্বতি এবং রোমান বর্ণমালায় কী ভাবে লিখতে হবে, তাও মন্ত্রক নির্দিষ্ট করে দিয়েছে। যে ছ’টি নতুন চিনা নামকে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে, সেগুলি হল— ও’গিয়াইনলিং, মিলা রি, কোইড গারবো রি, মাইনকুকা, বি মোলা, নামকাপুব রি।

Advertisement

আরও পড়ুন: যে কোনও মুহূর্তে শুরু হবে পরমাণু যুদ্ধ: চরম হুঁশিয়ারি উত্তর কোরিয়ার

অরুণাচল প্রদেশকে দীর্ঘ দিন ধরেই ‘দক্ষিণ তিব্বত’ নামে ডাকে চিন। ১৯৬২-র যুদ্ধে চিনা সেনা অরুণাচলের ভিতরে ঢুকেও পড়েছিল, পরে তারা ফিরে যায়। গোড়া থেকেই ভারতের শাসনে রয়েছে অরুণাচল প্রদেশ। কিন্তু চিন অরুণাচলকে ভারতের অংশ বলে স্বীকৃতি দিতে রাজি নয়। চিনের দাবি, অরুণাচল দু’দেশের মধ্যে একটি বিতর্কিত এলাকা। ভারতের পাল্টা দাবি, ১৯৬২-র যুদ্ধে জম্মু-কাশ্মীরের যে এলাকা (আকসাই চিন) দখল করেছিল চিন, সেই এলাকা ভারতকে ফেরত দেওয়া হোক। কিন্তু চিন তাতেও নারাজ। ফলে জম্মু-কাশ্মীর থেকে শুরু করে অরুণাচল পর্যন্ত বিস্তৃত সুদীর্ঘ চিন-ভারত সীমান্ত বহু বছর ধরেই দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের উন্নতির পথে কাঁটা হয়ে রয়েছে। সেই কাঁটাকে আরও তীক্ষ্ণ করে তুলল চিন। শান্তি এবং স্থিতিশীলতার সম্পূর্ণ উল্টো দিকে হেঁটে অরুণাচলের ছ’টি এলাকার নতুন নামকরণ করল তারা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.