Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৭ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

আচরণে বুঝিয়ে দেবেন না আপনি দোষী, মোদীকে খোঁচা রাহুলের

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ০২:৪০

দু’-দু’টি অনুষ্ঠানে আজ বক্তৃতা দিলেন প্রধানমন্ত্রী। তবে নীরব মোদীর কেলেঙ্কারি নিয়ে এ দিনও নীরবই রইলেন।

চাপ অবশ্য বেড়েই চলেছে। মোদী সরকারের বিরুদ্ধে দুর্নীতির জুতসই অভিযোগ হাতে পেয়ে আক্রমণের তীব্রতা বাড়িয়েছে কংগ্রেস। পিএনবি কাণ্ডে প্রধানমন্ত্রীর বিবৃতি দাবি করে আজও সরব হন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গাঁধী। টুইটে বলেন, ‘‘দোষীদের মতো আচরণ না করে বরং মুখ খুলুন!’’ মুখ খুলেছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। তাঁর অভিযোগ, নোট বাতিলের সঙ্গে এই দুর্নীতি সরাসরি সম্পর্কিত। তাঁর মতে, পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের কেলেঙ্কারি হিমশৈলের চূড়া। অন্য ব্যাঙ্কগুলিও জড়িত। সব তথ্য সামনে আসা উচিত।

প্রথমে রাফাল চুক্তি, তার পরে এই ব্যাঙ্ক প্রতারণা— স্বচ্ছ প্রশাসনের প্রতিশ্রুতি যে ধাক্কা খেয়েছে, বিলক্ষণ বুঝছেন ‘চৌকিদার’ প্রধানমন্ত্রী। মুশকিল আসান অরুণ জেটলি দেশের বাইরে। এই পরিস্থিতিতে আজ দিল্লিতে দলের সদর দফতর উদ্বোধন বা নবি মুম্বইয়ে বিমানবন্দরের অনুষ্ঠানে নীরব প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী মুখ খোলেন কি না, তা নিয়ে আগ্রহ ছিল যথেষ্ট। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আজও নীরবই থাকলেন তিনি। তবে প্রতিদিনের মতো এ দিনও একগুচ্ছ টুইট করেছেন প্রধানমন্ত্রী, বেশির ভাগই কৃত্রিম বোধশক্তির মতো গুরুগম্ভীর বিষয় নিয়ে।

Advertisement

সেই সুযোগে আর এক দফা তেড়েফুঁড়ে আক্রমণ শানিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গাঁধী। তিনি বলেন, ‘‘পরীক্ষা পাশ করা নিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের দু’ঘণ্টা বক্তৃতা শোনাতে পারেন। কিন্তু ২২ হাজার কোটির ব্যাঙ্ক দুর্নীতি নিয়ে দু’মিনিট বলার সময় পান না মোদী! অরুণ জেটলিও গা-ঢাকা দিয়েছেন!’’

আরও পড়ুন: অপরাধীদের মতো আচরণ করা বন্ধ করুন: তীব্র কটাক্ষে রাহুল

সরব তৃণমূলও। দলের অভিযোগ, নোট বাতিলের সময়ে একাধিক ব্যাঙ্কের বেশ কিছু কর্তাকে বদলি করা হয়। কার নির্দেশে এই বদলি, সেটাও সামনে আসা প্রয়োজন। মমতার কথায়, ‘‘নোট বাতিলের সময়ে বড় অঙ্কের টাকা পাচার হয়েছে। অন্যান্য ব্যাঙ্কগুলিও এর সঙ্গে জড়িত। প্রকৃত সত্য সামনে আসুক।’’ আজ কংগ্রেস মুখপাত্র মণীশ তিওয়ারিও বলেন, ‘‘রিজার্ভ ব্যাঙ্কের হিসেব বলছে বিভিন্ন ব্যাঙ্কে শোধ না-হওয়া ঋণের পরিমাণ ৬১,২৬০ কোটি টাকা। কারা কোন ব্যাঙ্ক থেকে এই ঋণ নিয়েছেন, তালিকা প্রকাশ করুক সরকার।’’ কংগ্রেস নিশ্চিত, তা হলে আরও কেলেঙ্কারি বেরোবে বিজেপির।

বিজেপির হয়ে আজ মুখ খুলেছেন সঙ্ঘ-ঘনিষ্ঠ প্রভাবশালী নেতা রাম মাধব। তাঁর হুমকি, ‘‘দু’-এক দিনের মধ্যে এমন একটি ভিডিও আসবে, কংগ্রেস পালানোর পথ পাবে না।’’ যা শুনে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি কংগ্রেস মুখপাত্র মণীশ তিওয়ারি। নাগাল্যান্ডে এই বিজেপি নেতার সাম্প্রতিক একটি ভিডিও কেলেঙ্কারির প্রসঙ্গ তুলে বলেন, ‘‘ভিডিও ফুটেজ প্রসঙ্গে রাম মাধব যত কম বলেন, ততই ভাল!’’

আরও পড়ুন

Advertisement