×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২১ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

উচ্চবর্ণের হিন্দুদের সামনে পা তুলে বসায় খুন দলিত!

সংবাদ সংস্থা
চেন্নাই০২ জুন ২০১৮ ০৬:৫১

উচ্চবর্ণের হিন্দুদের সামনে পায়ের উপর পা তুলে বসায় দলিত গ্রামে চড়াও হয়ে তিন জনকে হত্যা করল সশস্ত্র বাহিনী। গুরুতর জখম ছ’জন। হামলাকারীদের তাণ্ডবে গুঁড়িয়ে যায় কিছু ঘরবাড়ি। তামিলনাড়ুর শিবগঙ্গা জেলার কাচনাথম গ্রামের ঘটনা।

পুলিশ জানিয়েছে, গত শুক্রবার স্থানীয় কারুপ্পাস্বামী মন্দিরের বাইরে পায়ের উপর পা তুলে বসে ছিলেন ৩ দলিত যুবক। সেখানে উপস্থিত ছিলেন উচ্চবর্ণের দুই হিন্দু। অভিযোগ, তাঁদের ‘অসম্মান’ করা হচ্ছে বলে দাবি করে ওই তিন যুবককে কটূক্তি করলে বচসা বেধে যায় দু’পক্ষের। পরে চন্দ্রকুমার নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ জানান ওই দলিত যুবকরা।

এই ঘটনার তিন দিন বাদে, সোমবার দলিত গ্রামে অস্ত্র নিয়ে চড়াও হয় ১৫ জনের বাহিনী। অভিযোগ মন্দিরের ঝামেলার পর থেকেই দলিতদের হুমকি দিচ্ছিলেন পাশের গ্রামের তেবর সম্প্রদায়ের কিছু মানুষ। সে নিয়ে থানায় অভিযোগ জানিয়েও ফল হয়নি। সোমবারের হামলার ছক কষেছিল চন্দ্রকুমারের ছেলেই। ওই দিন রাতে বন্ধুদের নিয়ে কাচনাথম গ্রামে হামলা চালানতিনি। হাসপাতালের পথে মৃত্যু হয় অরুমুগম ও শন্মুগনাথম নামে দু’জনের। মাদুরাইয়ের হাসপাতালে মৃত্যু হয় চন্দ্রশেখর নামে আরও এক দলিতের। এর পরেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পরিস্থিতি। রাজাজি হাসপাতালের মর্গ থেকে মৃতদেহ নিতে অস্বীকার করে পরিবার। শিবগঙ্গা ও মাদুরাইয়ের জেলাশাসকের সঙ্গে বৈঠকের পরে তাঁদের দাবিদাওয়া মানার প্রতিশ্রুতি পেলে বিক্ষোভ তোলেন তাঁরা।

Advertisement

স্থানীয়দের অভিযোগ, কাচনাথম গ্রামে ৩০টি দলিত পরিবার ও পাঁচটি হিন্দু পরিবার থাকলেও বরাবরই কোণঠাসা দলিতরা। দলিতদের হাতে জমিজমা থাকলেও উচ্চবর্ণের হিন্দু জল দিলে তবেই চাষবাস করতে পারেন তাঁরা। এমনকি, উচ্চবর্ণের গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাতে গেলেও ব্যবস্থা নেয় না পুলিশ।

Advertisement