Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ জুন ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

অপেক্ষা চলছেই, এটিএমে দ্রুত টাকার আশ্বাস কেন্দ্রের

বেলা ১২টা। দেশে দু’লক্ষেরও বেশি এটিএম-কে দ্রুত নতুন নোটের উপযুক্ত করতে সরকার কী ব্যবস্থা নিচ্ছে, সাংবাদিক বৈঠকে তা জানালেন আর্থিক বিষয়ক সচিব

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি ও কলকাতা ১৫ নভেম্বর ২০১৬ ০৩:৩৬
Save
Something isn't right! Please refresh.
মির্জাপুরে। ছবি: পিটিআই।

মির্জাপুরে। ছবি: পিটিআই।

Popup Close

বেলা ১২টা।

দেশে দু’লক্ষেরও বেশি এটিএম-কে দ্রুত নতুন নোটের উপযুক্ত করতে সরকার কী ব্যবস্থা নিচ্ছে, সাংবাদিক বৈঠকে তা জানালেন আর্থিক বিষয়ক সচিব শক্তিকান্ত দাস। অথচ নোট নেই খাস নর্থ ব্লকের এটিএমেই! টাকা তুলতে না পেরে বিরস মুখে ফিরে যাচ্ছেন অর্থ মন্ত্রকের কর্তারা।

সোমবার ব্যাঙ্ক ছুটি। ফলে টাকার খোঁজে মরিয়া মানুষ ভিড় জমিয়েছেন এটিএমেই। ছবিটা একই। এটিএমের সামনে লম্বা লাইন। মেশিনে টাকা নেই। মানুষ বার বার দরজায় উঁকি মেরেছেন। কিন্তু দিনভর উপোসিই থেকে গিয়েছে অধিকাংশ এটিএম। পেটে নোট তার সে ভাবে জোটেনি।

Advertisement

লাগাতার ভোগান্তিতে জনতার ধৈর্যে যে চিড় ধরছে, তা বুঝতে পেরেই রবিবার একটু সবুর করার আর্জি জানিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আর এ দিন কেন্দ্র ঘোষণা করেছে যে, পরিস্থিতি যত তাড়াতাড়ি সম্ভব স্বাভাবিক করতে কী কী পদক্ষেপ করছে তারা।

মন্ত্রক জানিয়েছে, এটিএমগুলিকে নতুন নোটের উপযুক্ত করে তোলার কাজ শুরু হয়েছে ইতিমধ্যেই। নতুন ৫০০ ও ২০০০ টাকার নোটের মাপের সঙ্গে সাযুজ্য রেখে বদলানো হচ্ছে তার ক্যাসেট। মেশিনের মধ্যে এই ট্রে বা চ্যানেলের মতো জায়গাতেই টাকা রাখা থাকে। এই যন্ত্রাংশ পাল্টে বড় নোট (২০০০ ও নতুন ৫০০) ভরার বন্দোবস্ত হলে, সেই মেশিন থেকে দিনে ২,৫০০ টাকা পর্যন্ত তোলা যাবে। তার আগে পর্যন্ত দু’হাজারই।



জমা পড়া টাকা নিয়ে যাওয়া হচ্ছে অন্যত্র। স্টিফেন হাউসের একটি ব্যাঙ্কের সামনে প্রদীপ আদকের তোলা ছবি।

কলকাতার যে সমস্ত এটিএমে এ দিন টাকা জুটেছে, তাদের প্রায় সবগুলিতে ২,০০০ টাকা পর্যন্তই পাওয়া গিয়েছে। যন্ত্রাংশ বদলানোর সুফল মেলেনি। তবে ব্যাঙ্ক সূত্রে দাবি, এই কাজ শুরু হয়েছে। আর যেহেতু বড় নোট দিতে না পারা পর্যন্ত সমস্যার সমাধান অসম্ভব, তাই দ্রুত এই কাজ এগোনোর চেষ্টা করছে তারা। অর্থ মন্ত্রক জানিয়েছে, দেশের ২ লক্ষ ২০ হাজার এটিএম-কে নতুন নোটের উপযুক্ত করে তুলতে আরও ১৫-২০ দিন সময় লাগবে। যাতে এই কাজে দেরি না হয়, তা নিশ্চিত করতে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের ডেপুটি গভর্নরের নেতৃত্বে গড়া হচ্ছে টাস্ক ফোর্সও। স্টেট ব্যাঙ্কের কর্ণধার অরুন্ধতী ভট্টাচার্যের দাবি, শীঘ্রই ৫০ ও ২০ টাকার নোটও এটিএম থেকে দেওয়া হবে।

ছাড়ের মেয়াদ

• নিত্য প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রে পুরনো ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোটের ব্যবহার বাড়ল আরও ১০ দিন

• অর্থাৎ ২৪ নভেম্বর মধ্যরাত পর্যন্ত পুরনো নোট চলবে সরকারি হাসপাতালে, প্রেসক্রিপশন ও পরিচয়পত্র দেখিয়ে ওষুধ কিনতে, রেল-মেট্রো-বিমানের টিকিট কাউন্টারে, ট্রেনে খাবারের দাম মেটাতে, সরকারি বাসে, সরকারি দুধের ডিপোয়, রাষ্ট্রায়ত্ত পেট্রোল পাম্পে, রান্নার গ্যাসের দাম মেটাতে, পুরসভা ও সরকারি দফতরের কর ও জরিমানা মেটাতে, জল ও বিদ্যুতের (অবাণিজ্যিক) বিল দিতে, শ্মশানে ও কবরস্থানে

• ১৭ তারিখ পর্যন্ত অবাধে পণ্য যাতায়াত করবে
রাজ্যের সব চেকপোস্টে

• ১৮ তারিখ মধ্যরাত পর্যন্ত কোনও জাতীয় সড়কে
টোল ট্যাক্স দিতে হবে না

• ২১ তারিখ পর্যন্ত পার্কিং ফি মকুব সব বিমানবন্দরে

• ১৫ জানুয়ারি ২০১৭ পর্যন্ত লাইফ সার্টিফিকেট দিতে পারবেন পেনশনভোগীরা

হয়রান মানুষকে কিছুটা স্বস্তি দিতে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক জানিয়েছে, ডেবিট কার্ডের কেনাকাটায় চার্জ ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত লাগবে না। আপাতত এক ব্যাঙ্কের কার্ডে অন্য ব্যাঙ্কের এটিএমে টাকা তুললেও দিতে হবে না চার্জ।

নোটের খরায় জীবন জেরবার মফসস্‌ল এবং গাঁ-গঞ্জের মানুষের। বিশেষত সেই সমস্ত প্রত্যন্ত অঞ্চল, যেখানে ব্যাঙ্ক পৌঁছয়নি। এটিএমে টাকা তুলতে হেঁটে আসতে হয় কয়েক কিলোমিটার। রোজ এটিএমে ঢুঁ মারা তাই তাঁদের পক্ষে অসম্ভব। এই সমস্ত জায়গায় মাইক্রো-এটিএমের মাধ্যমে টাকা পৌঁছতে চাইছে কেন্দ্র।

মাইক্রো-এটিএম নিয়ে যাওয়া যায় সর্বত্র। থাকে ব্যাঙ্কের প্রতিনিধির (বিজনেস করেসপন্ডেন্ট) হাতে। আঙুলের ছাপ ও অ্যাকাউন্ট নম্বর (অথবা আধার নম্বর) সেখানে দিলেই টাকা মেলে করেসপন্ডেন্টের কাছ থেকে। সেই কারণে তাঁদের হাতে দেওয়া নগদের ঊর্ধ্বসীমাও এ দিন বাড়িয়ে ৫০,০০০ টাকা করা হয়েছে। বলা হয়েছে দিনে একাধিক বার তাঁদের টাকা দেওয়ার সুবিধার কথাও।

রবিবার রাতে বিভিন্ন শীর্ষ মন্ত্রী, রিজার্ভ ব্যাঙ্কের গভর্নর, সরকারি আধিকারিদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন মোদী। তা চলে দেড়টা পর্যন্ত। এটিএম-সমস্যা নিয়ে কথা হয় সেখানেই।

গোড়ায় সেভিংস অ্যাকাউন্টের মতো কারেন্ট অ্যাকাউন্টেও সপ্তাহে টাকা তোলার ঊর্ধ্বসীমা ছিল সপ্তাহে ২০,০০০। তা নিয়ে অসুবিধার কথা বার বার বলছিলেন ব্যবসায়ীরা। দাবি করছিলেন, সমস্যা হচ্ছে কর্মীদের বেতন দিতে। ওই সীমা বাড়িয়ে করা হয়েছে ৫০ হাজার টাকা। তবে শর্ত হল, কারেন্ট অ্যাকাউন্টটি অন্তত তিন সপ্তাহের পুরনো হতে হবে।

শক্তিকান্তবাবুর দাবি, ‘‘ছোট ডাকঘর বা সাব পোস্টঅফিসে নগদের জোগান বাড়ানো হচ্ছে।’’ তা করা হচ্ছে জেলা সমবায় ব্যাঙ্কগুলিতেও। অনেকে বলছেন, গ্রামে নগদে টান পড়লে, ধাক্কা খাবে অর্থনীতি। টান পড়বে ভোটে। তাই সেই ঝুঁকি কমাতে চাইছে কেন্দ্র। যদিও এ দিনই আবার ওই সমস্ত ব্যাঙ্কে পুরনো ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট জমা না নেওয়ার নির্দেশ পাঠিয়েছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক।

নোট আখ্যান

• এটিএম-কে নতুন নোটের উপযুক্ত করার কাজ শুরু

• যন্ত্রাংশ বদলানো হলে, দিনে তোলা যাবে ২,৫০০ টাকা পর্যন্ত। তার আগে দু’হাজারই

• ডেবিট কার্ডে কেনাকাটায় বা অন্য ব্যাঙ্কের এটিএম থেকে টাকা তুলতে আপাতত চার্জ লাগবে না

• নগদের চাহিদা সামলাতে আরও বেশি মাইক্রো-এটিএম

• বিজনেস করেসপন্ডেন্টদের হাতে নগদ ৫০,০০০ পর্যন্ত

• অন্তত তিন মাস আগে চালু কারেন্ট অ্যাকাউন্টে সপ্তাহে টাকা তোলার ঊর্ধ্বসীমা ৫০,০০০ টাকা

• একই সঙ্গে অচল (পুরনো ৫০০ ও ১০০০) ও চালু টাকা জমা দিতে গেলে, আলাদা-আলাদা পে-ইন স্লিপ

• বয়স্ক ও প্রতিবন্ধীদের জন্য আলাদা লাইন ব্যাঙ্কে

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement