Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৯ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

Nagaland Killing: থমথমে নাগাল্যান্ড! অশান্তির আশঙ্কায় সফর বাতিল তৃণমূলের, দিল্লিতে বৈঠকে মোদী

সংবাদসংস্থা
নয়াদিল্লি ০৬ ডিসেম্বর ২০২১ ১১:৩০
থমথমে নাগাল্যান্ড! অশান্তির আশঙ্কায় সফর বাতিল তৃণমূলের, দিল্লিতে বৈঠকে মোদী

থমথমে নাগাল্যান্ড! অশান্তির আশঙ্কায় সফর বাতিল তৃণমূলের, দিল্লিতে বৈঠকে মোদী
ফাইল ছবি

উত্তেজনার আগুন এখনও নিভে যায়নি। যে কোনও মুহূর্তে পরিস্থিতি আবার অগ্নিগর্ভ হয়ে উঠতে পারে। পরিস্থিতি কী রকম, তা রবিবার দফায় দফায় সংঘর্ষ বুঝিয়ে দিয়েছে। নাগাল্যান্ডে তিন দফায় সংঘর্ষে আরও ২ জন নিহত হয়েছেন। এ পর্যন্ত ১৬ জন নিহত হয়েছেন। জখম বহু।নিহতদের পরিবারে সঙ্গে দেখা করতে দেখা করতে সোমবার তৃণমূলের একটি প্রতিনিধি দলের ওটিং গ্রামে যাওয়ার কথা ছিল। প্রতিনিধি দলে ছিলেন, সাংসদ সুস্মিতা দেব, প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়, অপরূপা পোদ্দার, শান্তনু সেন এবং ত্রিপুরা তৃণমূলের মুখপাত্র বিশ্বজিৎ দেব। কিন্তু অশান্তির আশঙ্কায় প্লেনে ওঠার আগে সফর বাতিল করে তৃণমূল। তৃণমূল সূত্রে খবর, নাগাল্যান্ডের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি খুব খারাপ। ফলে এই দলের নিরাপত্তার দায়িত্ব নিতে চাইছে না সরকার। একই সঙ্গে প্রতিনিধি দলের সূত্রে জানানো হয়েছে, ওই প্রতিনিধি দলকে হয়তো গুয়াহাটি বিমানবন্দরেই আটকে দেওয়া হবে এবং বলা হবে ওই প্রতিনিধিরা যাওয়ার ফলেই অসম-নাগাল্যান্ডে আইনশৃঙ্খলার অবনতি হয়েছে। বাড়তে পারে নিহতের সংখ্যা। উত্তেজনা এড়াতে রবিবার ইন্টারনেট, এসএনএস পরিষেবা বন্ধ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। তা সত্ত্বে রবিবার সংঘর্ষ বন্ধ করা যায়নি।

সোমবার সংসদের অধিবেশনের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী মন্ত্রিসভার জরুরি বৈঠক ডাকেন। সূত্রের খবর, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ সোমবার সংসদে এ নিয়ে সংসদে বিবৃতি দিতে পারেন।

রবিবার টুইট করে নাগাল্যান্ডের ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতা লেখেন, ‘নাগাল্যান্ড থেকে খুব খারাপ খবর এসেছে। শোকাহত পরিবারের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা রইল। যাঁরা আহত হয়েছেন, তাঁদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি।’ ঘটনার তদন্তও দাবি করেন মমতা। রবিবার রাতেই একটি প্রতিনিধি দল পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয় তৃণমূল কংগ্রেস।

Advertisement

নাগাল্যান্ডের ঘটনার তদন্তে ইতিমধ্যেই পাঁচ সদস্যের একটি তদন্তকারী দল (সিট) গঠন করা হয়েছে। পাঁচ সদস্যের বিশেষ দলে থাকছেন আইজিপি লিমাসুনেপ জামির, ডিআইজি (সিআইডি) রূপা এম, এসপি (অপরাধ দমন শাখা) মনোজ কুমার, এসপি কিলাং ওয়ালিং, ১৫ নম্বর সশস্ত্র ব্যাটালিয়নের ডেপুটি কমান্ডান্ট রেলো আয়ে। প্রয়োজন হলে আরও সদস্য নিতে পারবে সিট। তদন্ত শেষ হবে এক মাসের মধ্যে।

নিহতের পরিবারকে এক কালীন ৬ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী নেফিয়ু রিও। জানিয়েছেন, আহতদের চিকিৎসার যাবতীয় খরচ বহন করবে রাজ্য সরকার। সোমবার ঘটনাস্থলে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী। এ ছাড়া পরিস্থিতির উপর নিয়মিত নজর রাখতে যাচ্ছেন পুলিশের ডিজি। আহতদের পরিস্থিতি খারাপ হলে তাঁদের যাতে দ্রুত অন্যত্র চিকিৎসার জন্য সরিয়ে নেওয়া যায়, সে কারণে দু’টি হেলিকপ্টারের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

শনিবার রাতে ‘ভুল করে’ সন্ত্রাসবাদী ভেবে নিরাপত্তা বাহিনী গুলি চালিয়েছিল। সেই গুলিতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন অন্তত ১৩ জন গ্রামবাসী। নাগাল্যান্ডের মন জেলায় ওটিং গ্রামে সন্ত্রাসদমন অভিযান চালানোর সময় নিরাপত্তাবাহিনী গুলি চালায় বলে অভিযোগ। তাতেই মারা যান গ্রামবাসীরা। পুলিশ জানিয়েছে, এই ঘটনায় এক জওয়ানেরও মৃত্যু হয়েছে। গ্রামটি মায়ানমার সীমান্তে অবস্থিত।

এর পর নাগাল্যান্ডের মুখ্যমন্ত্রী নেইফিউ রিও টুইটারে এই ঘটনার উল্লেখ করে দুঃখপ্রকাশ করেন। একে ‘দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা’ বলে উল্লেখ করে নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান। শোক প্রকাশ করে টুইট করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। অসম রাইফেলস-এর পক্ষ থেকে এক বিবৃতি জারি করে জানানো হয়েছে, ‘ঘটনার উচ্চপর্যায়ের তদন্ত হবে। দোষীদের আইন অনুযায়ী শাস্তি দেওয়া হবে।’

আরও পড়ুন

Advertisement