বয়স মাত্র ১০। তবে এর মধ্যেই ব্যবসার বহু পুরনো এক সারকথা জেনে ফেলেছে অ্যালেক্স জাকো। ‘সামান্য খটকা লাগলেও পরামর্শ নিন’। সেই সারকথা মেনেই অ্যালেক্স তার ‘ব্যবসা’ নিয়ে পরামর্শ চেয়েছে অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে পুরনো বিমান সংস্থা কোয়ান্টাস-এর সিইও অ্যালান জয়েসের থেকে।

সিডনির ওই খুদে স্কুলপড়ুয়ার অবশ্য কোনও বিমান সংস্থার মালিকানা নেই। তবে তাতে কী! নিজের ব্যবসা নিয়ে চিন্তা-ভাবনা করতে তো বাধা নেই! দিনরাত বিমান সংস্থা গড়ে তোলার স্বপ্নে মগ্ন। উড়ানের নম্বর কী হবে, কী কী বিমান থাকবে, এমনকি নিজের প্রিয় বন্ধু বাডি উল্ফকে ভাইস-সিইও পর্যন্ত করে ফেলেছে সে। সেই সঙ্গে বিমান সংস্থার একটা গালভরা নামও রেখেছে— ওশেনিয়া এক্সপ্রেস!

তবে ব্যবসায় তো কোনও প্রত্যক্ষ অভিজ্ঞতা নেই। তাই এ নিয়ে পরামর্শ চেয়েছে অ্যালানের কাছে।

বিমান পরিবহণ নিয়ে এই প্রশ্নগুলির উত্তর জানেন?

অ্যালানকে সরাসরি একটি চিঠিও পাঠিয়েছে অ্যালেক্স। অপটু হাতে পেনসিলে লেখা সেই ছোট চিঠি একেবারে কেজো কথায় ভরা। যেন কোনও ঝানু ব্যবসায়ীর লেখা।

চিঠির প্রথম লাইনেই অ্যালেক্স লিখেছে, “দয়া করে আমাকে সিরিয়াসলি নিন।” অন্য অনেক বিষয় ছাড়াও ব্যবসায় মুনাফা বাড়ানো নিয়েও চিন্তিত অ্যালেক্স। তাই অ্যালানের কাছে তার প্রশ্ন, “আপনি বলতে পারেন, মুনাফা বাড়াতে কী করতে পারি?”

ওশেনিয়া এক্সপ্রেসের উড়ানের একটি রুটও ঠিক করছে অ্যালেক্স। সিডনি থেকে লন্ডন, নন-স্টপ ফ্লাইট। যাত্রী স্বাচ্ছন্দ্যই তার লক্ষ্য। তাই অ্যালেক্স জানতে চেয়েছে, “একটানা ২৫ ঘণ্টার ফ্লাইট হওয়ায় যাত্রীদের ঘুমোনোর বিষয়টাও মাথায় রাখতে হচ্ছে। এ নিয়ে কোন পরামর্শ দিতে পারেন?”

আরও পড়ুন: মাসুদ আজহারকে ‘বিশ্ব সন্ত্রাসী’ ঘোষণায় এ বারও ভেটো? তেমনই ইঙ্গিত চিনের

অ্যাসেক্সের চিঠি পেয়ে তা অবহেলা করেননি অ্যালান। উত্তর দিয়েছেন। লিখেছেন, “আমি সাধারণত প্রতিপক্ষকে পরামর্শ দিই না। তোমার আইন বিষয়ক পরামর্শদাতা হয়তো এ নিয়ে কিছু সাহায্য করতে পারে। তবে এ ক্ষেত্রে একটা ব্যতিক্রম ঘটাচ্ছি। কারণ, আমিও এক সময় তোমার মতো ছোট ছিলাম যে এয়ারলাইন্স আর তার সম্ভাবনা নিয়ে ভাবনা-চিন্তা করত।”

অ্যালেক্স জাকোকে অস্ট্রেলিয়ার নতুন এয়ারলাইন্সের সিইও হিসাবে উল্লেখ করেছেন কোয়ান্টাস-এর সিইও অ্যালান জয়েস।  ছবি: সংগৃহীত।

অ্যালেক্সকে যাত্রী সুরক্ষা এবং সস্তার টিকিটের বিষয়ে নজর দিতে বলেছেন অ্যালান। সেই সঙ্গে জানিয়েছেন, কোয়ান্টাসও অস্ট্রেলিয়া থেকে লন্ডনে উড়ান চালুর কথা ভেবেছে। সেই ‘প্রজেক্ট সানরাইজ’-এর প্রকল্প নিয়ে তার সঙ্গে এক দিন আলোচনাও করতে চায় অ্যালান। অ্যালান লিখেছেন, “ওই যাত্রার কী ভাবে স্বাচ্ছন্দ্যপূর্ণ করে তোলা যায়, তা নিয়ে অনেক কিছু ভাবতে হবে আমাদের। এবং সে জন্য অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে পুরনো এয়ারলাইন্সের সিইও হিসাবে প্রজেক্ট সানরাইজ মিটিংয়ে তোমাকে আমন্ত্রণ জানাই।”

আরও পড়ুন: মহিলার ব্যাঙ্ক ব্যালান্স দেখে কী করল ডাকাত?

অ্যালেক্সকে অস্ট্রেলিয়ার নতুন এয়ারলাইন্সের সিইও হিসাবেও উল্লেখ করে তাকে কোয়ান্টাস পরিদর্শনেরও নিমন্ত্রণ করেছেন অ্যালান। কবে দু’জনের মিটিং হবে তা এখনও স্থির হয়নি বলে জানিয়েছেন অ্যালেক্সের মা।

কোয়ান্টাস কর্তৃপক্ষ দু’জনের চিঠিই তাদের টুইটার অ্যাকাউন্টে পোস্ট করেছে। ভাইরাল হওয়া ওই পোস্টে অনেকেই অ্যালানকে প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছেন। তবে নিন্দুকদের দাবি, বাহবা কুড়োনোর জন্যই এমনটা করেছে কোয়ান্টাস!

(সব গুরুত্বপূর্ণআন্তর্জাতিক খবরজানতে চোখ রাখুন আমাদের আন্তর্জাতিক বিভাগে।)