তার সঙ্গেই খেলতে খেলতে মা হঠাৎ জ্ঞান হারিয়ে মেঝেতে পড়ে গেলেন। বাড়িতে তখন আর কেউই নেই। ছিল শুধু চার বছরের খুদে। নাম রোমান। খনিকের জন্য ভীষণ ঘাবড়ে গিয়েছিল। তার পর উপস্থিত বুদ্ধি কাজে লাগিয়েই বাঁচিয়ে দিল মাকে। সংজ্ঞাহীন মায়ের ফিংগারপ্রিন্ট কাজে লাগিয়ে চার বছরের শিশু কী ভাবে সামলাল পরিস্থিতি, কী ভাবে মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরিয়ে আনল মাকে, জানলে অবাক হবেন।

মার্চের ৭ তারিখের ঘটনা। লন্ডনের এক পরিবারে জন্ম রোমানের। ওই দিন বাড়িতে সে মায়ের সঙ্গে খেলছিল। বাড়ির অন্য সদস্যেরা ছিলেন বাইরে। সে সময়ই তার মা কোনও কারণে অজ্ঞান হয়ে মেঝেতে পড়ে যান। প্রথমে মাকে কিছু ক্ষণ ডাকাডাকি করছিল রোমান। কিন্তু কোনও সাড়া মেলেনি। এর পর মায়ের আইফোন হাতে নিয়ে এক ছুটে মায়ের কাছে যায় সে। মায়ের আঙুল ছাপের মাধ্যমে মোবাইল আনলক করে। তারপর ‘সিরি’ অ্যাপের সাহায্যে লন্ডন পুলিশের জরুরিকালীন নম্বর ৯৯৯-এ ডায়াল করে সাহায্য চায়।

ফোনের ওপারে একটা বাচ্চার অস্পষ্ট কথায় প্রথমে বিষয়টা খুব একটা গুরুত্ব দিয়ে দেখেনি পুলিশ। কিন্তু কিছু পরেই বুঝতে পারে সত্যিই কিছু একটা বিপদ ঘটেছে। রোমান পুলিশকে জানায় তার মা মারা গিয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসা করা হয়, এর মানে কী? রোমান জানায়, তার মা কথা বলছে না, শ্বাস নিচ্ছে না আর চোখও খুলছে না। পুলিশ তাকে বলে ধাক্কা দিয়ে চিৎকার করে মাকে ডাকতে। রোমান সেটাও করে। কিন্তু তাতেও কোনও কাজ হয়নি। এর পর তার কাছ থেকে ঠিকানা জেনে ১৩ মিনিটের মধ্যেই চিকিৎসককে নিয়ে ওই বাড়িতে পৌঁছয় পুলিশ। ভিতরে ঢুকে প্রাথমিক চিকিৎসার পর জানা যায় তিনি জ্ঞান হারিয়েছেন। নিকটবর্তী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে।

আরও পড়ুন: শিশুপুত্র সহ ভারতীয় মহিলা আইটি কর্মী খুন আমেরিকায়

আস্তে আস্তে সুস্থ হয়ে উঠছেন রোমানের মা। তিনি জানান, রোমানকে প্রথম থেকেই বিপদে ফোনের ব্যবহার কী ভাবে করতে হয় তা শিখিয়েছেন তিনি। সেটাই কাজে এসেছে ওই দিন।