৯/১১-এর সেই ভয়ঙ্কর দিনটা আজও তাড়া করে তাঁকে। দাউদাউ করে জ্বলছে পেন্টাগন। সেখান থেকে কোনও রকমে প্রাণ হাতে করে বেরিয়ে আসতে পেরেছিলেন মানাল এজ়াট।

১৮ বছর আগে পেন্টাগনে আছড়ে পড়েছিল জঙ্গি-বিমান। প্রাণ গিয়েছিল ১৮৪ জনের। আজ সেই পেন্টাগনের একটি অংশে দাঁড়িয়ে রয়েছে একটি চ্যাপেল। যেটি তিল তিল করে গড়ে তুলেছেন মুসলিম ইঞ্জিনিয়ার এজ়াট। উদ্দেশ্য, সেই ভয়ঙ্কর স্মৃতি মুছে ফেলা। একটি সাক্ষাৎকারে এজ়াট বলেছেন, ‘‘আমরা একটা শান্ত জায়গা গড়ে তুলতে চেয়েছি, যাতে সেই ভয়ঙ্কর দিনের স্মৃতি মুছে ফেলা যায়।’’ 

আর্মি কোর অব ইঞ্জিনিয়ার্স-এর কর্মী এজ়াট। জঙ্গি হামলার পরে জায়গাটি আবার নতুন করে গড়ে তোলার দায়িত্ব দেওয়া হয় এজ়াট এবং তাঁর সহকর্মীদের। কিন্তু ওই জায়গাটিতে এজ়াট আর কোনও দফতর গড়তে চাননি। তাঁর যুক্তি ছিল, কোনও কর্মীই আর ওই জায়গায় বসে কাজ করতে পারবেন না। সেই কারণে সেখানে একটি চ্যাপেল তৈরি করেন এজ়াট। এই চ্যাপেলে প্রতিদিন প্রার্থনা করেন মার্কিন সেনাবাহিনীর সব ধর্মের কর্মীরা। চ্যাপেলের দেওয়ালে লেখা রয়েছে জঙ্গি হামলায় নিহতদের নাম। রয়েছে  বিভিন্ন ধর্মীয় পুস্তক। রয়েছে নিহতের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর জায়গাও।