প্রাণঘাতী হামলার হাত থেকে জোর বাঁচলেন জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মের্কেল। চেক সফররত মের্কেলের কনভয়ে হানা দিল সন্দেহভাজন কালো গাড়ি। পুলিশের গাড়িকে পাশ কাটিয়ে জার্মান চ্যান্সেলরের গাড়ির খুব কাছাকাছিই পৌঁছে গিয়েছিল সেই সন্দেহভাজন। তবে পুলিশি তৎপরতায় আর শেষ পর্যন্ত রক্ষা পেয়েছেন মের্কেল।

চেক প্রজাতন্ত্রের প্রধানমন্ত্রী বহুস্লাভ সোবোক্তার সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে যোগ দিতে বৃহস্পিতবার প্রাগ পৌঁছেছেন জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মের্কেল। চেক পুলিশ জানিয়েছে, মের্কেলের কনভয় যখন প্রাগ বিমানবন্দর থেকে মূল শহরের দিকে যখন যাচ্ছিল, তখন একটি কালো মার্সিডিজ গাড়ি কনভয়ে ঢুকে পড়ার চেষ্টা করে। কনভয়ে থাকা পুলিশের গাড়ি থেকে ওই মার্সিডিজের চালককে সতর্ক করে দেওয়া হয়। কনভয়ে ঢুকতে বারণ করা হয়। কিন্তু সে কথা শোনেনি। পুলিশের একটি গাড়ি সেটির পথ আটকানোর চেষ্টা করলে, মার্সিডিজটি তাকে পাশ কাটিয়ে মের্কেলের গাড়ির আরও কাছাকাছি চলে যায়। বেগতিক বুঝে পুলিশ চলন্ত অবস্থাতেই ঘিরে ফেলে মার্সিডিজটিকে। না থামলে গুলি চালানো হবে বলে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়। এর পর ওই সন্দেহভাজন গাড়ি থামায়। তার কাছ থেকে আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার হয়েছে।

আরও পড়ুন: শান্তির বিপরীতে ভারত: সীমান্তে ব্রহ্মস মোতায়েন নিয়ে ফের উষ্মা চিনের

জার্মান চ্যান্সেলরের উপরে হামলা করার জন্যই যে ওই সশস্ত্র ব্যক্তি কনভয়ে ঢুকেছিল, তা চেক পুলিশ স্পষ্ট করে বলেনি। তবে পুলিশের মুখপাত্র প্রাগে জানিয়েছেন, বড়সড় ক্ষতি করার জন্যই কনভয়ে ঢুকেছিল ওই সন্দেহভাজন ব্যক্তি। কখনও ফ্রান্স, কখনও বেলজিয়াম, কখনও জার্মানিতে একের পর এক জঙ্গি হামলার জেরে গোটা ইউরোপে এখন হাই অ্যালার্ট। জার্মান চ্যান্সেলরের কনভয়ে সশস্ত্র ব্যক্তির হানার পর স্বাভাবিক ভাবেই আতঙ্ক ছড়িয়েছে।